HomeE365মাধ্যমিক বাংলা সাজেশন 2023 pdf | Madhyamik Bengali Suggestion 2023 PDF

মাধ্যমিক বাংলা সাজেশন 2023 pdf | Madhyamik Bengali Suggestion 2023 PDF

প্রিয় বন্ধুরা, সামনেই তোমাদের 2023 মাধ্যমিক পরীক্ষা। তাই সম্পূর্ণ বিনামূল্যে তোমাদের জন্য আমরা মাধ্যমিক বাংলা সাজেশন 2023 pdf এই পেজে দিলাম।আমরা তোমাদের জন্য প্রতিটা অধ্যায় অনুযায়ী আলাদা আলাদা করে এবছরের জন্য সাজেশন বানিয়েছি। মাধ্যমিক দশম শ্রেণীর প্রতিটা বিষয়ের সাজেশন আমরা তোমাদের জন্য বানিয়েছি যেগুলি সম্পূর্ণ বিনামুল্যে আমাদের ওয়েবসাইট থেকে ডাউনলোড করা যাবে।

নীচে আমরা সম্পূর্ণ চ্যাপ্টারগুলির এক এক করে গুরুত্বপূর্ণ সাজেশন দিয়ে রেখেছি। প্রথম দিকে তোমরা অনলাইনে প্রশ্নগুলি দেখে নিতে পারবে এবং মনে করলে সম্পূর্ণ PDF ডাউনলোড করতে পারবেন।

শেষের দিকে আমরা তোমাদের জন্য বিনামূল্যে পশ্চিমবঙ্গ মাধ্যমিক বাংলা সাজেশন 2023 pdf দিয়ে রেখেছি। Madhyamik Bengali Suggestion 2023 পিডিএফটি ডাউনলোড করে তোমরা মনে করলে প্রিন্ট করে নিতে পারো।

এবছরের দশম শ্রেণীর বোর্ডের বাংলা পরীক্ষা হবে 23শে ফেব্রুয়ারি 2023 সালে। পরীক্ষা শুরু হবে সকাল 11টা থেকে এবং শেষ হবে বিকাল 3টের দিকে। আমাদের দেওয়া Madhyamik Bengali Suggestion 2022 PDF Download করে তোমরা যদি ভালভাবে পড়ো এটুকু বলতে পারি বহু প্রশ্ন হবুহ কমন আসবে।

WBBSE Madhyamik Bengali Exam 2023:

Exam Name:  মাধ্যমিক 
Exam Date: 23/02/2023
Topic: Madhyamik Suggestion
Subject: Bengali
File: PDF

 

West Bengal Madhyamik Bengali Syllabus:

1] জ্ঞানচক্ষু

2] অসুখী একজন

3] আয় আরো বেঁধে বেঁধে থাকি-

4] আফ্রিকা

5] হারিয়ে যাওয়া কালি কলম

6] বহুরূপী

7] অভিষেক

8] সিরাজদৌল্লা

9] প্রলয়োল্লাস

10] পথের দাবী

11] সিন্ধুতীরে

12] বাংলা ভাষায় বিজ্ঞান

13] অদল বদল

14] অস্ত্রের বিরুদ্ধে গান

15] কোনি

16] নদীর বিদ্রোহ

ব্যাকরণ

 

1] কারক ও অ-কারক সম্পর্ক

2] বাক্য পরিবর্তন

3] সমাস

4] বাচ্য পরিবর্তন

5] সংলাপ

6] প্রতিবেদন রচনা

7] বঙ্গানুবাদ

8]প্রবন্ধ রচনা

সূচিপত্রঃ

1] জ্ঞানচক্ষু

2] অসুখী একজন

3] আয় আরো বেঁধে বেঁধে থাকি-

4] আফ্রিকা

5] হারিয়ে যাওয়া কালি কলম

6] বহুরূপী

7] অভিষেক

8] সিরাজদৌল্লা

9] প্রলয়োল্লাস

10] পথের দাবী

11] সিন্ধুতীরে

12] বাংলা ভাষায় বিজ্ঞান

13] অদল বদল

14] অস্ত্রের বিরুদ্ধে গান

15] কোনি

16] নদীর বিদ্রোহ

ব্যাকরণ

1] কারক ও অ-কারক সম্পর্ক

2] বাক্য পরিবর্তন

3] সমাস

4] বাচ্য পরিবর্তন

5] সংলাপ

6] প্রতিবেদন রচনা

7] বঙ্গানুবাদ

8]প্রবন্ধ রচনা

 

জ্ঞানচক্ষু

ক] বাহুবিকল্পনিও প্রশ্ন ( প্রশ্নমানঃ01)

1] ‘ পৃথিবীতে এমন অলৌকিক ঘটনাও ঘটে? ‘! – অলৌকিক ঘটনা হল-

(ক) তপন এর লেখা ‘ সন্ধাতারা’ পত্রিকাএ প্রকাশ পেয়েছে,

(খ) বারিতে তপন এর নাম হয় গেছে কবি, সাহিত্তিক, কথাশিল্পি,

(গ)এক লেখন এর সাথে ছতমাসি বিয়ে হয়েছে,

(ঘ) তপন দেখল ছাপানো গল্পের একটি লাইনও তার নিজের নয়

Ans: (ক) তপন এর লেখা ‘ সন্ধাতারা’ পত্রিকাএ প্রকাশ পেয়েছে,

 

2] ‘তপন প্রথমটা ভাবে ঠাট্টা ‘কিন্তু যখন দেখে মেসোর মুখে করুনার ছাপ তখন আহ্লাদে…………………. হয়ে যায় |’- (ক) আনন্দিত,

(খ) দুঃখিত,

(গ) কাঁদো কাঁদো,

(ঘ) বিহল

Ans: (গ) কাঁদো কাঁদো,

 

3] ‘তপন এর হাত আছে|’- কথাটির অর্থ হলো –

(ক)জবরদস্তি

(খ)হস্তক্ষেপ,

(গ) মারামারি,

(ঘ)ভাষার দখল,

 

Ans:(ঘ)ভাষার দখল,

 

4]’সেই বই নাকি ছাপা হই’-কার লেখা বই ছাপা হই-

(ক) তপন এর লেখা বই,

(খ) ছোট মাসির লেখা বই,

(গ) তপন এর নতুন মেশর লেখা বই,

(ঘ) রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর এর লেখা বই

Ans: (গ) তপন এর নতুন মেশর লেখা বই,

 

5] ‘তা ওরকম একটি লেখক মেশো থাকা মন্দ নয় ‘- একথা বলেছেন-

(ক) তপনের বাবা

(খ) তপনের ছোটমামা

(গ)তপনের ছোট মাসি,

(ঘ)তপনের মেজকাকু,

Ans:(ঘ)তপনের মেজকাকু,

 

6] ‘তারপর ধমক খায় ‘- তপন ধঅমক খাএ –

(ক) গল্প লেখার জন্য,

(খ) পড়াশোনায় মনোযোগ না দেওয়ার জন্য

(গ) ছোট মাসির অবাধ্ব হওয়ার জন্য,

(ঘ)নিজের লেখা গল্প না পড়ার জন্য,

Ans: (ঘ)নিজের লেখা গল্প না পড়ার জন্য,

 

7] ছোট মাসি তপনের থেকে কত বছরের বড়? –

(ক) বছর পাঁচেকের,

(খ) বছর আটেক,

(গ) বছর দশেকের,

(ঘ) বছর বারোর

Ans:(খ) বছর আটেক,

 

8] তপন তার প্রথম গল্পটি লিখেছিল –

(ক) সকালবেলা,

(খ) দুপুরবেলা,

(গ) বিকেলবেলা,

(ঘ) রাত্রিবেলা

Ans: (খ) দুপুরবেলা,

 

9] ‘তপন যে কারনে মামাবারিতে এসেছে তা হল-

(ক) বড়দিনের ছুটি কাটাতে

(খ)ছোটমামার বিয়ে উপলক্ষে,

(গ)ছোট মাসির বিয়ে উপলক্ষে

(ঘ)পুজোর ছুটি কাটাতে,

Ans: (গ)ছোট মাসির বিয়ে উপলক্ষে

 

খ] অতি- সংক্ষিপ্ত উত্তরধর্মী প্রশ্ন (প্রশ্নমানঃ01)

 

1] গল্পটা ছাপা হলে যে ভয়ঙ্কর আল্লাহ টা হওয়ার কথা, সেই আল্লাহর খুঁজে পায়না ‘- উদ্দিষ্ট ব্যক্তি আল্লাহ দিত হতে না পারার কারণ কি?

2] বিকেলের চায়ের টেবিলে উঠে কথাটি ”- কোন কথা?

3] তপনের গল্প পড়ে ছোট মাসি কি বলেছিল?

4] বুকের রক্ত ছলকে ওঠে তপনের ”- কখন তপনের এমন পরিস্থিতি হয়েছিল?

5] ‘ তপনের মনে হয় আজ যেন তার জীবনের সবচেয়ে দুঃখের দিন ‘- তপনের এমন মনে হওয়ার কারণ কি?

6] ‘… এমন সময় ঘটল সেই ঘটনা ‘- উদ্ধৃতাংশ কোন ঘটনার কথা বলা হয়েছে?

7] সত্যিকারের লেখক ”- উক্তিটির মধ্যে দিয়ে তপনের কোন মনোভাবের প্রকাশ পেয়েছে?

8] ‘ পৃথিবীতে এমন অলৌকিক ঘটনা ঘটে কোন অলৌকিক ঘটনার কথা উদ্ধৃতাংশ বলা হয়েছে?

9] ‘আর যেন তার জীবনের সবচেয়ে দুঃখের দিন ”- বক্তার কোন দিনটি সবচেয়ে দুঃখের?

10] ‘কথাটি শুনে তপনের চোখ মার্বেল হয়ে গেল ‘- কোন কথা শুনে তপনের চোখ মার্বেল হয়ে গিয়েছিল?

11] ” সত্যিই হুগো গল্পের মতোই লাগছে “- ‘ হুবহু ‘ শব্দটি ব্যবহার করা অন্য একটি বাক্য রচনা করো?

12] ‘একটু কারেকশন করে ইয়ে করে দিলে ছাপাতে দেওয়া চলে ‘- কে কি ছাপানোর কথা বলেছেন?

13] ‘ সূচিপত্র নাম রয়েছে সূচিপত্রে কি লেখা রয়েছে ‘-?

14] ‘শুধু এই দুঃখের মুহূর্তে গভীরভাবে সংকল্প করে তপন ‘- তপন কি সংকল্প করেছিল?

গ] সংক্ষিপ্ত উত্তর ভিত্তিক প্রশ্ন ( প্রশ্নমানঃ03)

1] ‘গল্প ছেপে আসার পর যে আল্লাহ টা হওয়ার কথা সেই আল্লাহ না হওয়ার কারণ কি? কোন দিনটি তার কাছে সবচেয়ে দুঃখের দিন হয়ে উঠলো?

2] ‘যদি তপন লেখা চাপতে দেয় তবে, তপন নিজে গিয়ে দেবে ‘- কখন তপন এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছিল? কেন তার এমন সিদ্ধান্ত?

3] ‘ যে ভয়ংকর আল্লাদ হওয়ার কথা ছিল সেই আল্লাদ তা খুঁজে পায় না ‘- আল্লাদ’ হওয়ার কথা ছিল কেন? আল্লাদ খুঁজে না পাওয়ার কারণ কি?

4] ‘পৃথিবীতে এমন ‘অলৌকিক’ ঘটনাও ঘটে’-কোন ঘটনাটিকে অলৌকিক বলা হয়েছে? কেন সেই ঘটনাটি অলৌকিক?

5] ‘ওর হবে ‘- বক্তা কে? কেন তার এরকম মনে হয়েছে?

6] ‘ বিকেলের চায়ের টেবিলে ওঠে কথাটা ‘- বিকেলের চায়ের টেবিলে কি প্রসঙ্গে আলোচনা হয়েছিল?

7] তাই এই ভয়ঙ্কর আনন্দের খবর টা সর্বাগ্রে ছোট মাসি কে দিয়ে বসে ”-তপন কেন তার গল্প লেখার খবর সবার আগে ছোট মাসি কে দিয়েছিল?

8]| ‘তার চেয়ে দুঃখের আর কিছু নেই ‘- কোন ঘটনা সবচেয়ে দুঃখজনক?

9] ‘কথাটা শুনে তপনের চোখ মার্বেল হয়ে গেল ‘- কোন কথা শুনে কেন তপনের চোখ মার্বেল হয়ে গেল? মার্বেল হয়ে গেল ‘ কথাটি কি অর্থে ব্যবহৃত হয়েছে? তপন কি শুনে ছিল?

10] ‘ রত্নের মূল্য জহুরির কাছে ‘-উক্তিটির অর্থ প্রসঙ্গ উল্লেখ করে ব্যাখ্যা করো?

ঘ] রচনাধর্মী প্রশ্ন: ( প্রশ্নমানঃ05)

1] ‘ জ্ঞানচক্ষু গল্প অবলম্বনে তপনের জ্ঞানচক্ষু কিভাবে উন্মীলিত হয়েছিল তা আলোচনা করো?

2] ‘ পৃথিবীতে এমন অলৌকিক ঘটনাও ঘটে ‘- তপনের এমন মনে হওয়ার কারণ কি?

3] ‘ তপন আর পড়তে পারে না | বোবার মতো বসে থাকে’- তপনের এরকম অবস্থার কারণ বিশ্লেষণ করো?

4] ‘ নতুন মেসো কে দেখে জ্ঞানচক্ষু খুলে গেল তপনের ‘-‘জ্ঞানচক্ষু’ কথাটির অর্থ কি? নতুন মেসো কে দেখে কিভাবে তপনের জ্ঞানচক্ষু খুলে গিয়েছিল?

5] ‘জ্ঞানচক্ষ’ গল্পে ‘জ্ঞানচক্ষু’ বলতে কী বোঝানো হয়েছে? গল্পটি পড়ে তুমি কি শিক্ষা পেয়েছো লেখ | ‘জ্ঞানচক্ষু ‘গল্পের নামকরণের সার্থকতা বর্ণনা করো?

6] ”পৃথিবীতে এমন অলৌকিক ঘটনা ঘটে ”- কোন ঘটনাকে অলৌকিক ঘটনা আখ্যা দেওয়া হয়েছে? সেই ঘটনার প্রতিক্রিয়া কি হয়েছিল ‘জ্ঞানচক্ষু’ গল্প অবলম্বনে বর্ণনা করো?

7] ‘ তপনের মনে হয় আজ যেন তার জীবনের সবচেয়ে দুঃখের দিন “- কেন তপনের এমন মনে হয়েছিল?

 

অসুখী একজন

ক] বাহুবিকল্পনিও প্রশ্ন ( প্রশ্নমানঃ01)

1] ‘তারপর যুদ্ধ এল ‘-

(ক) আগ্নেয় পাহাড়ের মত,

(খ) রক্তের সমুদ্রের মতো,

(গ) পাহাড়ের আগুনের মত,

( ঘ) রক্তের এক আগ্নেয় পাহাড়ের মত।

Ans:

2] ‘ ডুবে দিল ধ্যানে ‘-কত দিনের ধ্যান –

(ক) এক যুগ,

(খ) শতবর্ষ,

(গ) হাজার বছর,

(ঘ) যুগের পর যুগ ধরে।

Ans:

3] ‘সে জানত না ‘- উদ্ধৃতাংশ সে বলতে বোঝানো হয়েছে গির্জার এক –

(ক)ঈশ্বরকে,

(খ) একটি শিশুকে,

(গ) একটি সাধারণ নারীকে,

(ঘ) সন্ন্যাসীকে

Ans:

4] অসুখী একজন কবিতার লেখক পাবলো নেরুদা নোবেল পুরস্কার পেয়েছিলেন –

(ক) ১৯৭০ সালে,

(খ) ১৯৭১ সালে,

(গ) ১৯৭২ সালে,

(ঘ) ১৯৭৩ সালে।

5] ‘ ধরে গেল আগুন ‘- কোথায়? –

(ক)ফসলের খেতে,

(খ) জনবসতিতে,

(গ)ঘন অরন্নে,

(ঘ) সমস্ত সমতলভহুমিতে

6] পাঠ্য ‘অসুখী একজন ‘কবিতাটি অনুবাদক হলো? –

(ক)মানবেন্দ্র বন্দ্যোপাধ্যায়।

(খ) নবারুণ ভট্টাচার্য্য,

(গ) উৎপলকুমার বসু,

(ঘ) শঙ্খ ঘোষ

7] কবি পাবলো নেরুদার জন্মস্থান কথায় –

(ক)ইতালি

(খ) ফ্রান্স

(গ) পেরু

(ঘ) চিলি

 

8] ‘তারা আর স্বপ্ন দেখতে পারলো না ‘- কারা স্বপ্ন দেখতে পারলো না? –

(ক) কবিতার কথক

(খ) গির্জার নান

(গ) সেই মেয়েটি

(ঘ) শান্ত হলুদ দেবতারা

9] “বছরগুলো নেমে এল তার মাথার উপর “-বছর ঘুরে তার মাথার উপর নেমে এসেছিল –

(ক)রক্তের এক আগ্নেয় পাহাড়ের মত

(খ) পরপর পাথরের মত

(গ) বৃষ্টির মত

(ঘ) রক্তের একটা কালো দাগের মত

10]’অসুখী একজন’ কবিতায় কোবির বিছানার ধারে যে ঝুলন্ত গাছটি ছিল –

(ক)গলাপি

(খ) হলুদ

(গ) নিল

(ঘ) সবুজ

11] ‘অসুখী একজন’ কবিতাটি কবি পাবলো নেরুদার যে কাব্যগ্রন্থের অন্তর্গত সেটি হল –

(ক) the captain’s verses,

(খ) extravagaria,

(গ)intimacles: the poem of love,

(ঘ) on the blue source of silence: ‘poems of the sea

 

খ] অতি- সংক্ষিপ্ত উত্তরধর্মী প্রশ্ন (প্রশ্নমানঃ01)

1] বছরগুলো নেমে এল তার মাথার উপর ”- বছরগুলো কিভাবে নেমে এসেছিল?

2] ‘অসুখী একজন ‘কবিতায় কবি কাদের মৃত্যুর প্রসঙ্গ উল্লেখ করেছে?

3] ‘যেখানে ছিল শহর – সেখানে কি ছড়িয়ে রইল?

4] ‘তারা আর স্বপ্ন দেখতে পারলো না ”- কাদের কথা বলা হয়েছে? তারা আর স্বপ্ন দেখতে পারলো না কেন?

5] ‘ অসুখী একজন’ কবিতাটি কে বাংলায় তরজমা করেন?

6] ‘সে জানত না ‘- তার অজানা বিষয় কি?

7] ‘ তারপর যুদ্ধ এলো ‘- কিসের মতো করে যুদ্ধ এলো?

8] ” আমি তাকে ছেড়ে দিলাম ”- কথক কাকে ছেড়ে দিলেন?

9] ”তারপর যুদ্ধ এলো ”- যুদ্ধ কিভাবে এসেছিল?

10] তারপর যুদ্ধ এলো ”- যুদ্ধের আগমনকে ‘অসুখী একজন’ কবিতার কথক কিসের উপমায় ব্যবহার করেছেন?

11] ‘অসুখী একজন ‘কবিতাটি পাবলো নেরুদার কোন কাব্যগ্রন্থের অন্তর্গত?

12] অসুখী একজন কবিতা অবলম্বনে কবির ঘর ও গৃহস্থলীর পরিচয় দাও?

13] অসুখী একজন কবিতা অবলম্বনে শহরের সেই পরিস্থিতির বর্ণনা দাও?

14] ‘ অসুখী একজন ‘কবিতায় কথক এর অপেক্ষায় ছিলে?

15] ‘ শিশু আর বাড়ি রাখুন হলো ‘- শিশু আর বাড়ি রাখুন হয়েছিল কেন?

গ] সংক্ষিপ্ত উত্তর ভিত্তিক প্রশ্ন ( প্রশ্নমানঃ03)

1] ” সমস্ত সমতলে ধরে গেল আগুন ‘- তার ফলে কি ঘটলো?

2] ”সেই মেয়েটির মৃত্যু হল না ”- কোন মেয়েটির কথা বলা হয়েছে? তার মৃত্যু না হওয়ার কারণ কি?

3] ”সে জানতো না আমি আর কখনো ফিরে আসবো না ”- সে কে? ‘আমি আর কখনো ফিরে আসবো না’ বলার কারণ কি?

4] ‘নেমে এল তার মাথার উপর ‘- কার মাথার উপর, কি নেমে এসেছিল? তা কেনইবা নেমে এসেছিল?

5]’ ধুয়ে দিল আমার পায়ের দাগ ‘- কে ধুয়ে দিল? পায়ের দাগ দেওয়ার তাৎপর্য কি?

6] ‘ যেখানে ছিল শহর ‘- সেখানে কি কি ছড়িয়ে রইল?

7] ‘ অসুখী একজন কবিতায় কার মাথার উপর বছরগুলো কেন পাথরের মতো নেমে এসেছিল?

8] ”সব চূর্ণ হয়ে গেল জ্বলে গেল আগুনে ”- কোন কোন জিনিসের কথা বলা হয়েছে? এই পরিণতির কারণ কি?

9] ” আমি তাকে ছেড়ে দিলাম ”- আমি কে? ‘তাকে’ বলতে কাকে বোঝানো হয়েছে? তাকে কোথায় ছেড়ে দিলাম?

ঘ] রচনাধর্মী প্রশ্ন: ( প্রশ্নমানঃ05)

1] ‘ শিশু আর বাড়ি রাখুন হলো ‘- যুদ্ধ কিভাবে একটি শান্ত নিরুপদ্রব অবস্থানকে মৃত্যু উপত্যকায় পরিণত করে তা কমপক্ষে 150টি শব্দের মধ্যে আলোচনা করো।

2] ‘ আর সেই মেয়েটি আমার অপেক্ষায় ‘- কোন মেয়েটির কথা বলা হয়েছে? কোন পরিস্থিতিতে সে কথকের জন্য অপেক্ষা করেছে?

3] ‘ সব চূর্ণ হয়ে গেল জ্বলে গেল আগুনে ‘- কবিতা অনুসরণে পরিস্থিতির বিবরণ দাও?

4] ”তারপর যুদ্ধ এলো ‘- কিসের মতো যুদ্ধ এলো?তারপর বলতে কখন? তারপর কি পরিনতি ঘটলো?

5] ‘ সেই মিষ্টি বাড়ি ‘ সম্পর্কে কবি যে বর্ণনা একেছেন তা নিজের ভাষায় লেখ?

6] ‘ যেখানে ছিল শহর / সেখানে পড়ে রইল শুধু কাঠ কয়লা ‘- ‘অসুখী একজন ‘ কবিতা অবলম্বনে শহরের এই পরিণতি কিভাবে হল ব্যাখ্যা করো?

 

আয় আরো বেঁধে বেঁধে থাকি

 

ক] বাহুবিকল্পনিও প্রশ্ন ( প্রশ্নমানঃ01)

 

1] ‘ হয়তো কি বেঁচে আছে ‘–

(ক) মানুষ

(খ) ভহিখারি

(গ) পৃথিবী

(ঘ) গাছ।

2] কবি হাত ধরে রাখতে চাইছে কারণ –

(ক) হাত শক্ত হবে,

(খ) প্রতিরোধ গড়ে তোলা সম্ভব হবে

(গ) বন্ধুত্ব গড়ে উঠবে,

(ঘ) যদি হারিয়ে যায় তাই

3] যে কাব্যগ্রন্থটির শঙ্খ ঘোষের লেখা নয় –

(ক) ধুম লেগেছে হৃৎ কমলে

(খ) দিনগুলি রাতগুলি,

(গ) পাঁজরে দাঁড়ের শব্দ,

(ঘ) দিন ও রাত

4] ‘আয় তবে বেঁধে বেঁধে রাখি’- বাক্যাংশটি কবিতায় কভার ব্যবহার হয়েছে? –

(ক) একবার,

(খ) দুইবার,

(গ) তিনবার,

(ঘ) চারবার

 

5] ‘ পায় পায় হিমানির বাধ ‘- হিমানী শব্দের আক্ষরিক অর্থ? –

(ক) তুষার

(খ) আগুন

(গ)জল

(ঘ) পর্বত

 

6] আমাদের কি নেই বলে কবি এই কবিতায় মত প্রকাশ করেছেন? –

(ক) জীবন,

(খ) ইতিহাস,

(গ) ভুগল,

(ঘ) সন্মান

 

7] ‘আমাদের মাথায় ‘- মাথার উপর কি? –

(ক) জলন্ত সূর্য,

(খ) রাতের চাঁদ,

(গ) বোমারু,

(ঘ) ধ্রুব তারা

8] ‘আয় তবে বেধে বেধে থাকি’- বাক্যাংশ তীর অর্থ কি? –

(ক) ঢিলেঢালা থাকা

(খ) দৃঢ় বন্ধনে থাকা

(গ) বন্ধন মুক্ত থাকা

(ঘ) হাত ছাড়া থাকা

9] ‘ আয় আরো বেঁধে বেঁধে থাকি’ কবিতাটি কোন কাব্যগ্রন্থের অন্তর্গত? –

(ক) জলই পাষাণ হয়ে আছে

(খ) দিনগুলি রাতগুলি

(গ)পাঁজরে দাঁড়ের শব্দ

(ঘ) নিহিত পাতালছায়া

10]”আমাদের পথ নেই আর।”- ‘পথ’ শব্দটি কবিতায় ব্যবহৃত হয়েছে-

ক) একবার

খ) দু-বার

গ) তিনবার

ঘ) চারবার

Ans: খ) দু-বার

11] ‘ছড়ানো রয়েছে কাছে দূরে !’— কী ছড়ানো রয়েছে ?

(ক) আমাদের শিশুদের শব

(খ) সৈন্যদের শব

(গ) লালরঙের ফুল

(ঘ) বৃদ্ধ বৃদ্ধাদের শব

 

খ] অতি- সংক্ষিপ্ত উত্তরধর্মী প্রশ্ন (প্রশ্নমানঃ01)

 

1]”আমাদের পথ নেই আর”— তাহলে আমাদের করণীয় কী ?

2] ‘ আমাদের পথ নেই কোন ‘– একথা বলার কারণ কি?

3] ‘ ছড়ানো রয়েছে কাছে দূরে ‘– কি ছড়ানো রয়েছে?

4] ‘ আয় আরো বেঁধে বেঁধে থাকি ‘ কবিতায়’ ডান পাশে ধ্বস’ ও ‘বায় গিরিখাত ‘ বলতে আসলে কবি কী বুঝিয়েছেন?

5]”পৃথিবী হয়তো বেঁচে আছে /পৃথিবী হয়তো গেছে মরে”- একথা বলার কারণ কী ?

6] ‘ আমাদের ইতিহাস নেই ‘– কেন এ কথা বলা হয়েছে?

7] “আয় আরো বেঁধে বেঁধে থাকি”- বেঁধে বেঁধে থাকার উদ্দেশ্য কী?

 

গ] সংক্ষিপ্ত উত্তর ভিত্তিক প্রশ্ন ( প্রশ্নমানঃ03)

 

1] ‘ছরান রয়েছে কাজে দূরে।”– কাছে-দূরে কী ছড়ানো রয়েছে?

2] ‘আয় আরো হাত হাত রেখে / আয় আরো বেঁধে বেঁধে থাকি’– এই উদ্ধৃতির মধ্যে দিয়ে কবি কী বলতে চেয়েছেন?

3] “আমরাও তবে এইভাবে / এ মুহূর্তে মরে যাব না কি ? ?” — এমনটা মনে হচ্ছে কেন ?

4] “আমাদের ইতিহাস নেই” — কে, কেন এ কথা বলেছেন ?

5] “আমাদের পথ নেই কোনো”- ‘পথ’ বলতে কবি কী বুঝিয়েছেন ? কবির এমন আশঙ্কার কারণ ব্যাখ্যা করো ।

6] ‘আয় আরো বেঁধে বেঁধে থাকি’– কাদের প্রতি কবির এই আবেদন? ‘বেঁধে বেঁধে থাকার তাৎপর্যটি কী?

7] ‘আমরা ভিখারি বারোমাস। — কেন একথা বলা হয়েছে?

8] ‘পৃথিবী হয়তো বেঁচে আছে’ এখানে ‘হয়তো’ শব্দটি কবি কোন প্রসঙ্গে ব্যবহার করেছেন?

9] ‘আমাদের কথা কে বা জানে। – আমরা কারা তাদের কোন না জানার কথা উল্লিখিত হয়েছে?

 

ঘ] রচনাধর্মী প্রশ্ন: ( প্রশ্নমানঃ05)

 

1] ‘আয় আরো বেঁধে বেঁধে থাকি’ কবিতার মূল বক্তব্য সংক্ষেপে আলোচনা করে নামকরণ সার্থকতা বুঝিয়ে দাও।

2] “আয় আরো বেঁধে বেঁধে থাকি”- ‘বেঁধে বেঁধে থাকা’ বলতে কবি কী বুঝিয়েছেন এবং কাদের এভাবে থাকতে বলেছেন ? কবি বেঁধে বেঁধে থাকার প্রয়োজনীয়তার ওপর জোর দিয়েছেন কেন?

 

আফ্রিকা

ক] বাহুবিকল্পনিও প্রশ্ন ( প্রশ্নমানঃ01)

 

1] “প্রদোষকাল ঝঞ্ঝাবাতাসে রুদ্ধশ্বাস”–প্রদোষ শব্দের অর্থ? –

(ক) সকাল,

(খ) দুপুর,

(গ) রাত্রি,

(ঘ) বিকাল

2] কবির সংগীতে বেজে উঠেছিল’ – কী বেজে উঠেছিল। –

(ক) সুরের ঝংকার,

See also  সেরা ৬ টি বিয়ে সম্পর্কিত ব্যবসার আইডিয়া, করতে পারবেন দারুন ইনকাম।

(খ) সুন্দরের আরাধনা,

(গ) সংগীতের মূর্ছনা,

(ঘ) রাগরাগিণী

3] আফ্রিকাকে কে ছিনিয়ে নিয়ে গেল ? –

(ক)প্রলয় সমুদ্রের বাহু,

(খ) ভয়ংকর সমুদ্রের বাহু,

(গ)রুদ্র সমুদ্রের বাহু,

(ঘ) ক্ষুদ্ধ সমুদ্রের বাহু

4] অপরিচিত ছিল তোমার মানবরূপ’ – কেন অপরিচিত ছিল?

(ক)পূর্বে পরিচিত ছিল না বলে

(খ) কালো ঘোমটার নীচে থাকার জন্য

(গ) চিত্ত ছিল দর্পে, গর্বে অন্য

(ম) এদের কোনোটিই না

5] “সেই হোক তোমার সভ্যতার শেষ পুণ্যবাণী— ‘সভ্যতার শেষ পুণ্যবাণী’-

(ক) ভালোবাসো

(খ) ক্ষমা করো

(গ) বিদ্বেষ ত্যাগ করো

(ঘ) মঙ্গল করো

6] ‘দাঁড়াও ওই মানহারা মানবীর দ্বারে’- উদ্ধৃতাংশে ‘মানহারা মানবী’ বলতে বোঝানো হয়েছে –

(ক) আফ্রিকা মহাদেশকে

(খ) ভারতবর্ষকে

(গ) বাসুধাকে

(ঘ) পশ্চিম দুনিয়াকে

 

7] ‘ বাষ্পাকুল অরণ্যপথে’ – অরণ্যপথ বাষ্পাকুল হওয়ার কারণ হল-

(ক) অত্যাচারীর ক্রন্দন,

(খ) বর্ষার মেঘ,

(গ) আবহাওয়ার জন্য,

(ঘ) আফ্রিকার ভাষাহীন কান্না

 

খ] অতি- সংক্ষিপ্ত উত্তরধর্মী প্রশ্ন (প্রশ্নমানঃ01)

 

1] ‘নিভৃত অবকাশে তুমি’ – নিভৃত অবকাশে আফ্রিকা কী করছিল?

2] ‘শিশুরা খেলছিল মায়ের কোলে;’ – উদ্ধৃতাংশটি কোন্ কবিতার অংশ?

3] “এসো যুগান্তের কবি” – কবির ভূমিকাটি কী হবে?

4] ‘….অপরিচিত ছিল তােমার মানবরূপ/উপেক্ষার আবিল দৃষ্টিতে।”—কার মানবরূপ, কাদের কাছে উপেক্ষার আবিল দৃষ্টিতে উপেক্ষিত ছিল?

5] ‘আফ্রিকা’ কবিতায় দিনের অন্তিমকাল কীভাবে ঘোষিত হয়েছিল?

6] ’ পশুরা বেরিয়ে এল’ বেরিয়ে এসে কী করেছিল?

7] “এল মানুষ ধরার দল” – তাঁদের আগমনের আগে আফ্রিকার স্বরূপ কেমন ছিল?

 

গ] সংক্ষিপ্ত উত্তর ভিত্তিক প্রশ্ন ( প্রশ্নমানঃ03)

 

1] ‘দাঁড়াও এই মানহারা মানবীর দ্বারে!’ – মানহারা মানবীর পরিচয় দাও। কবি কাকে তার দ্বারে এসে দাঁড়ানোর আহ্বান জানিয়েছেন?

2] ‘ শঙ্কাকে চাচ্ছিলে হার মানাতে’ – কে শঙ্কাকে হার মানাতে চাচ্ছিল? কীভাবে সে শঙ্কাকে হার মানাতে চাচ্ছিল।

3] “এসো যুগান্তের কবি, ” – যুগান্তের কবি’কে কেন আহ্বান করা হয়েছে?

4] ‘অনন্ত ধ্বনিতে ঘোষণা করল দিনের অন্তিমকাল” – “অশুভ ধ্বনি’ বলতে কী বোঝানো হয়েছে। ‘দিনের অন্তিমকাল’ ঘোষণা মর্মার্থ বুঝিয়ে দাও?

5] “নগ্ন করল আপন নির্লজ্জ অমানুষতাকে”- কারা এমন করেছিল? কীভাবে তারা তাদের অমানুষতা প্রকাশ করেছিল?

6] ‘কবির সংগীতে বেজে উঠেছিল / সুন্দরের আরাধনা ।’ এই বেজে ওঠার তাৎপর্য কি?

7] উদ্ভ্রান্ত আদিম যুগের কথা ‘আফ্রিকা’ কবিতায় কীভাবে উল্লিখিত হয়েছে?

 

ঘ] রচনাধর্মী প্রশ্ন: ( প্রশ্নমানঃ05)

 

1] ‘নগ্ন করল আপন নির্লজ্জ অমানুষতা।’ – কারা, কীভাবে “আপন নির্লজ্জ অমানুষতা’-র প্রকাশ ঘটিয়েছিল? তাদের সম্বন্ধে কবির কী মনোভাব প্রকাশ পেয়েছে লেখো।

2] ‘সভ্যের বর্বর লোভ’ – কাদের তথাকথিত ‘সভ্য’ বলা হয়েছে। তাদের বর্বর লোভের যে পরিচয় ‘আফ্রিকা’ কবিতায় রয়েছে তা আলোচনা করো।

3] ‘সেই হোক তোমার সভ্যতার শেষ পুণ্যবাণী।। – কোন্ প্রসঙ্গে এই উক্তি। উত্তিটির তাৎপর্য বিশ্লেষণ করো?

4]’হায় ছায়াবৃতা,” – ‘ছায়াবৃতা’ বলার কারণ কী? তার সম্পর্কে কবি কী বলেছেন সংক্ষেপে লেখো।

5] “চিরচিহ্ন দিয়ে গেল তোমার অপমানিত ইতিহাসে।।” – ‘তোমার’ বলতে কার কথা বলা হয়েছে? তার অপমানিত ইতিহাসে ‘র সংক্ষিপ্ত পরিচয় দাও।

6] ‘আফ্রিকা’ কবিতা অনুসরণে আফ্রিকা মহাদেশের উদ্ভবের ইতিহাস আলোচনা করো।

 

হারিয়ে যাওয়ার কালি কলম

ক] বাহুবিকল্পনিও প্রশ্ন ( প্রশ্নমানঃ01)

 

1] ‘যার পোশাকি নাম স্টাইলাস’ – কার পোশাকি নাম? –

(ক) কুইল

(খ) নল-খাগড়া

(গ) খাগের কলম

(ঘ) ব্রোঞ্চের শলাকা

2] ফাউন্টেন পেন সংগ্রহ করতেন –

(ক) রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

(খ) শৈলজানন্দ মুখোপাধ্যায়

(গ) জীবনানন্দ দাশ

(ঘ) সত্যজিৎ রায়

3] ‘কালি কলম মন, লেখে তিন জন।” – এটি হল একটি-

(ক) ধাঁধা,

(খ) প্রবাদ,

(গ) রূপকথা,

(ঘ) উপকথা। দিন

4] কালির অক্ষর নাইকো পেটে, চণ্ডী পড়েন-

(ক) বাবুঘাটে,

(খ) কালীঘাটে,

(গ) গঙ্গাঘাটে,

(ঘ) খেয়া ঘাটে।

5] ‘কেরি সাহেবের মুনশি’ নামে কোন ব্যক্তি খ্যাত ছিলেন?–

(ঝ) মৃত্যুঞ্জয় বিদ্যালঙ্কার,

(খ) চন্ডীচরণ মুনশি,

(গ) রামরাম বসু,

(ঘ) গোলকনাথ শৰ্মা

6] “সিজার যে কলমটি দিয়ে কাসকাকে আঘাত করেছিলেন”- তার পোশাকি নাম–

(ক) রিজার্ভার,

(খ) স্টাইলাস,

(গ) পার্কার,

(ঘ) পাইলত

7] ‘বাবু কুইল ড্রাইভারস’ কথাটি বলতেন–

(ক) ওয়াটারম্যান,

(খ) লর্ড কার্জন,

(গ) উইলিয়াম জোন্স

(ঘ)উইলিয়াম

খ] অতি- সংক্ষিপ্ত উত্তরধর্মী প্রশ্ন (প্রশ্নমানঃ01)

1] শ্রীপাদ কোথা থেকে তাঁর জীবনের প্রথম ফাউন্টেন পেনটি কিনেছিলেন?

2] ‘ সেই আঘাতেরই পরিণতি নাকি তার মৃত্যু’– – কোন আঘাতের কথা এখানে বলা হয়েছে?

3] ‘হারিয়ে যাওয়া কালি কলম’-এ বর্ণিত সবচেয়ে দামি কলমটির কত দাম?

4] ‘কুইল’ এখন কোথায় দেখতে পাওয়া যায়?

5] ‘সেই আঘাতেরই পরিণতি নাকি তাঁর মৃত্যু। – কোন্ আঘাতের পরিণতিতে মৃত্যুর কথা বলা হয়েছে?

6] ‘তখন মনে কষ্ট হয় বইকী’ – কখন লেখকের মনে কষ্ট হয়?

7] “আমরা ফেরার পথে কোনও পুকুরে তা ফেলে দিয়ে আসতাম।”– বক্তা কেন তা পুকুরে ফেলে দিতেন?

8] ক্যালিগ্রাফিস্ট কাদের বলে?

9] ‘সেই আঘাতেরই পরিণতি নাকি তাঁর মৃত্যু। – কোন্ আঘাতের পরিণতিতে মৃত্যুর কথা বলা হয়েছে?

10] দোকানদার লেখককে কলম বিক্রি করার আগে কী জাদু দেখিয়েছিলেন?

11] ‘সেই আঘাতেরই পরিণতি নাকি তাঁর মৃত্যু। – কোন্ আঘাতের পরিণতিতে মৃত্যুর কথা বলা হয়েছে?

12] লেখক শ্রীপাদ ছোটোবেলায় কীসে ‘হোম টাস্ক’ করতেন?

গ] রচনাধর্মী প্রশ্ন: ( প্রশ্নমানঃ05)

1] কালি কলমের প্রতি লেখকের ভালোবাসার যে পরিচয় প্রবন্ধে বিবৃত হয়েছে তার পরিচয় দাও। এই প্রবন্ধের নামকরণ কতখানি সার্থক?

2] কালি কলমের প্রতি ভালোবাসা হারিয়ে যাওয়া কালি কলম’ প্রবন্ধে কীভাবে ফুটে উঠেছে তা আলোচনা করো। এগুলিকে হারানোর বেদনা কীভাবে ফুটে উঠেছে?

3] ‘ কম্পিউটারও নাকি ছবি আঁকতে পারে। কিন্তু সে ছবি কতখানি যন্ত্রের আর কতখানি শিল্পীর?’ – লেখকের এই মন্তব্যের কারণ বুঝিয়ে দাও?

4] ‘ফাউন্টেন পেনের এক বিপদ, তা লেখককে নেশাগ্রস্ত করে।’ – রকমারি ফাউন্টেন পেনের নামগুলি কী কী ফাউন্টেন পেন যে লেখককে নেশাগ্রস্ত করে তার দু-একটি দৃষ্টান্ত দাও।

5] “আমার মনে পড়ে প্রথম ফাউন্টেন পেন কেনার কথা।” – “হারিয়ে যাওয়া কালি কলম’ রচনায় কোন সময়ে লেখকের ফাউন্টেন পেন কেনার অভিজ্ঞতার কথা বলা হয়েছে। ফাউন্টেন পেন কেনার অভিজ্ঞতাটি কেমন ছিল?

6] ‘আমরা কালিও তৈরি করতাম নিজেরাই।’ – কারা কালি তৈরি করতেন। তাঁরা কীভাবে কালি তৈরি করতেন?

7] “আমার মনে পড়ে প্রথম ফাউন্টেন কেনার কথা।”— লেখক কোথায় ফাউন্টেন কিনতে গিয়েছিলেন? তাঁর কী অভিজ্ঞতা হয়েছিল?

8] প্রাবন্ধিক শ্রীপাদ্ধ কলমের বিবর্তনকে যেভাবে প্রকাশ করেছেন, তা নিজের ভাষায় লেখো?

বহুরূপী

ক] বাহুবিকল্পনিও প্রশ্ন ( প্রশ্নমানঃ01)

 

1] ‘খুব হয়েছে হরি, এই বার সরে পড়ো। অন্যদিকে যাও।’- একথা বলেছে –

(ক) ভবতোষ

(খ) অনাদি

(গ) কাশীনাথ

(ঘ) জনৈক বাসযাত্রী

2] ছদ্মবেশে সেদিন হরিদার রোজগার মন্দ হয়নি।- কীসের ছদ্মবেশে?

ক) বাইজি,

(খ) পুলিশ,

(গ) পাগল

(ঘ) ভিখারি

3] জগদীশবাবু কাঠের খড়মে লাগিয়েছিলেন –

(ক) হীরের ফুল,

(খ) সোনার বোল,

(গ) রূপোর বল,

(খ) সোনার চুমকি

4] সপ্তাহে হরিদা বহুরূপী সেজে বাইরে যান –

(ক) একদিন,

(খ) দুদিন,

(গ) চারদিন,

(ঘ) পাঁচদিন

5] বাইজির ছদ্মবেশে হরিদার রোজগার হয়-

(ক) আট টাকা দশ আনা,

(খ) আট টাকা আট আনা

(গ) দশ টাকা চার আনা

(ঘ) দশ টাকা দশ আনা

6] সন্ন্যাসীকে বিদায় দেওয়ার সময় জগদীশবাবু দিয়েছিলেন –

(ক) পঞ্চাশ টাকার নোট,

(খ) একশো টাকার নোট,

(গ) পাঁচশো টাকার নোট,

(গ) হাজার টাকার নোট

7] ছদ্মবেশে সেদিন হরিদার রোজগার মন্দ হয়নি।- কীসের ছদ্মবেশে?

ক) বাইজি,

(খ) পুলিশ,

(গ) পাগল

(ঘ) ভিখারি

 

খ] অতি- সংক্ষিপ্ত উত্তরধর্মী প্রশ্ন (প্রশ্নমানঃ01)

1] ‘গল্প শুনে খুব গম্ভীর হয়ে গেলেন হরিদা। – হরিদার শোনা গল্পটি কী?

2] ‘চমকে উঠলেন জগদীশবাবু’- জগদীশবাবুর চমকে ওঠার কারণ কী?

3] লেখক ও তার বন্ধুরা হরিদার কাছে কোন ঘটনা শোনাতে এসেছিলেন?

4] ‘বা, সত্যি, খুব চমৎকার পুলিশ সেজেছিল হরি।’- হরি কীভাবে পুলিশ সেজে অভিনয় করেছিল?

5] ‘পরম সুখ’ বলতে বক্তা কী বুঝিয়েছেন?

6] ‘অদৃষ্ট কখনও হরিদার এই ভুল ক্ষমা করবে না।’ – হরিদার কোন ভুলের কথা এখানে বলা হয়েছে?

7] ‘হরিদার জীবন এইরকম বহু রূপের খেলা দেখিয়েই একরকম চলে যাচ্ছে।” ― কীরকম খেলা দেখিয়ে হরিদার জীবন চলে যাচ্ছে?

8] জগদীশবাবু তীর্থভ্রমণের জন্য বিরাগীকে কত টাকা দিতে চেয়েছিলেন?

 

গ] সংক্ষিপ্ত উত্তর ভিত্তিক প্রশ্ন ( প্রশ্নমানঃ03)

 

1] ‘আপনি কি ভগবানের চেয়েও বড়ো?’ -কাকে একথা বলা হয়েছে? তাঁকে একথা বলা হয়েছে কেন?

2] “সে ভয়ানক দুর্লভ জিনিস।” কোন্ জিনিসের কথা বলা হয়েছে? তা দুর্লভ কেন?

3] ‘খুবই গরিব মানুষ হরিদা। – হরিদার পরিচয় দাও। তাঁর দারিদ্র্যের ছবি ‘বহুরূপী’ গল্পে কীভাবে প্রতিভাসিত হয়েছে?

4] হরিদা পুলিশ সেজে কোথায় দাঁড়িয়েছিলেন। তিনি কীভাবে মাস্টারমশাইকে বোকা বানিয়েছিলেন?

5] ‘বাঃ, এ তো বেশ মজার ব্যাপার।’- কোন ঘটনাকে বক্তা মজার ব্যাপার বলেছেন? ঘটনাটিকে তার মজার মনে হয়েছে কেন?

6] ‘তাতে যে আমার ঢং নষ্ট হয়ে যায়।’ – ‘ঢং’ বলতে কী বোঝানো হয়েছে? কীসে বক্তার ঢং নষ্ট হয়ে যাবে?

7] ‘খুব উঁচু দরের সন্ন্যাসী। সন্ন্যাসীর পরিচয় দাও।

 

ঘ] রচনাধর্মী প্রশ্ন: ( প্রশ্নমানঃ05)

 

1] ‘তেমনই অনায়াসে সোনাও মাড়িয়ে চলে যেতে পারি।’ — উক্তিটি কার? কোন্ প্রসঙ্গে তাঁর এই মন্তব্য? মন্তব্যের আলোকে বন্ধার চরিত্রবৈশিষ্ট্য আলোচনা করো?

2] জগদীশবাবুর বাড়ি হরিদা বিরাগী সেজে যাওয়ার পর যে ঘটনা ঘটেছিল, তা বর্ণনা করো?

3] ‘অদৃষ্ট কখনও হরিদার এই ভুল ক্ষমা করবে না। – হরিদা কী ভুল করেছিলেন? অদৃষ্ট ক্ষমা না করার পরিণাম কী?

4] জগদীশবাবুর বাড়িতে হরিদা বিরাগী সেজে যাওয়ার পর কী ঘটেছিল তা ‘বহুরূপী’ গল্প অবলম্বনে আলোচনা করো।

5] ‘বহুরূপী’ গল্পের নামকরণের সার্থকতা বিচার কর?

6] ‘খাঁটি মানুষ তো নয়, এই বহুরূপীর জীবন এর বেশি কী আশা করতে পারে?’ – বক্তা কে? মন্তব্যটির প্রসঙ্গ উল্লেখ করে এই আক্ষেপ কতটা যথার্থ তা লেখো।

7] “আজ তোমাদের একটা জবর খেলা দেখাব।” – জবর খেলাটির বর্ণনা দাও?

8] ‘খাঁটি মানুষ তো নয়, এই বহুরূপীর জীবন এর বেশি কী আশা করতে পারে?’ – বক্তা কে? মন্তব্যটির প্রসঙ্গ উল্লেখ করে এই আক্ষেপ কতটা যথার্থ তা লেখো।

9] “এই শহরের জীবনে মাঝে মাঝে বেশ চমৎকার ঘটনা সৃষ্টি করেন বহুরূপী হরিদা।” – ‘বহুরূপী’ গল্প অনুসরণে সেই চমৎকার ঘটনাগুলির পরিচয় দাও।

10] ‘একদিন চকের বাস স্ট্যান্ডের কাছে ঠিক দুপুরবেলায় একটা আতঙ্কের হল্লা বেজে উঠেছিল।” — বাস স্ট্যান্ডের কাছে কী ঘটনা ঘটেনি তা ‘বহুরূপী’ গল্প অবলম্বনে আলোচনা করো।

11] হরিদার জীবন দুঃখের হওয়া সত্ত্বেও তিনি কীভাবে মানুষকে আনন্দ দান করেছেন, সংক্ষেপে লেখো?

 

অভিষেক

ক] বাহুবিকল্পনিও প্রশ্ন ( প্রশ্নমানঃ01)

 

1] ইন্দ্রজিতের স্ত্রীর নাম

(ক) ইন্দিরা,

(খ) সরমা,

(গ) নিকষা,

(ঘ) প্রমীলা

2] ‘হৈমবতীসুত’ যাকে বধ করেছিলেন তিনি হলেন–

(ক) মহিষাসুর,

(খ) তারকাসুর,

(গ) বৃত্রাসুর,

(ঘ) ভস্মাসুর

3] ‘রত্নাকর রত্নোত্তমা’ কে? –

(ক) সরমা,

(খ) সীতা,

(গ) প্রমীলা,

(ঘ) লক্ষ্মী

4] “নাদিলা করদল” – “কর্পূর’ শব্দের অর্থ কী?

(ক) সৈন্য,

(খ) রাক্ষস,

(গ) বানর,

(ঘ) যোদ্ধা

5] ‘কনক আসন তাজি, বীরেন্দ্রকেশরী” – বীরেন্দ্রকেশরী’ কাকে বলা হয়েছে?–

(ক) রাবণকে,

(খ) রাঘবকে,

(গ) ইন্দ্রজিৎকে,

(ঘ) কুম্ভকর্ণকে

6] ‘নিকুন্তিলা যজ্ঞ সাঙ্গ কর, বীরমণি।” -বীরমণি’ হলেন –

(ক) রাবণ,

(খ) বিভীষণ,

(গ) ইন্দ্রজিৎ,

(ঘ) বীরবাহু

7] ‘ নমি পুত্র পিতার চরণে’ – এখানে পুত্র হল

(ক) মেঘনাদ,

(খ) বীরবাহু,

(গ) কুম্ভকর্ণ,

(ঘ) বিভীষণ

8] বিদায় এবে দেহ, _____ । শূন্যস্থান পূরণ করো ।

(ক) বিধুমুখী

(খ) কল্যাণী

(গ) গণনিধি

(ঘ) ভগবতী

 

খ] অতি- সংক্ষিপ্ত উত্তরধর্মী প্রশ্ন (প্রশ্নমানঃ01)

 

1] ‘নাদিলা করদল…’ – করদলের ‘নাগ’-এর কারণ কী?

2] ‘মেঘনাদবধ কাব্য’-এর প্রথম সর্গটির নাম লেখো। এ কাব্যে মোট কটি সর্গ?

3] ‘গিরিশৃঙ্গ কিম্বা তরু যথা / বজ্রাঘাতে।’ – এই উপমাটি কোন প্রসঙ্গো ব্যবহত হয়েছ?

4] ‘বিদায় এবে দেহ, বিধুমুখী।’ — উদ্ধৃতাংশে ‘বিধুমুখী’ কে?

5] ইন্দ্রজিতের রথ কেমন দেখতে ছিল ?

6] ছদ্দবেশী অম্বুরাশি-সুতা” কেন ইন্দ্রজিতের কাছে এসেছিলেন ?

 

গ] সংক্ষিপ্ত উত্তর ভিত্তিক প্রশ্ন ( প্রশ্নমানঃ03)

 

1] ‘অভিষেক’ কাব্যাংশ অনুসরণে বীরবাহুর মৃত্যু সংবাদ শুনে মেঘনাদেনা যে প্রতিক্রিয়া হয়েছিল, তা আলোচনা কর?

2] ‘কাপিলা লঙ্কা, কাপিলা জলধি – যে পরিপ্রেক্ষিতে কবি একথা বলেছেন নিজের ভাষায় লেখো।

3] “হাসিবে মেঘবাহন” – ‘মেঘবাহন’ কে? সে হাসবে কেন?

4] ‘রোষে মহাবলী / মেঘনাদ’ কার উক্তি? মেঘনাদের রোষের পরিচয় দাও?

5] “অম্বুরাশি-সুতা / উত্তরিলা ” – “অম্বুরাশি-সুতা’ কে? তিনি কী উত্তর দিলেন?

6] ‘ কি হেতু, মাতঃ, গতি তব আজি / এ ভবনে।’ – বন্ধা কাকে ‘মাতা’ সম্বোধন করেছেন। তিনি এ প্রশ্নের কি উত্তর দিলেন?

7] “জিজ্ঞাসিলা মহাবাহু বিস্ময় মানিয়া ” কাকে মহাবাহু বলা হয়েছে। তার বিস্ময়ের কারন কি?

8]“কাঁপিলা লঙ্কা, কাপিলা জলধি।”— ‘লঙ্কাপুরী’ এবং ‘জলধি কেঁপে ওঠার কারণ নির্দেশ করো।

9] ‘ হৈমপাখা বিস্তারিয়া যেন । উড়িলা মৈনাক-শৈল, অম্বর উজলি!’ — এই উপমা প্রয়োগের সার্থকতা বুঝিয়ে দাও?

10]’ তবু তারে রাখে পদাশ্রয়ে যূথনাথ’ – বক্তা কে? তাঁর মন্তব্যটি বিশ্লেষণ করো?

11] ‘ অভিষেক করিলা কুমার।’ – ‘কুমার’ কে? তাকে কোন পরিস্থিতিতে অভিনিত করা হল?

12] ‘ সাজিছে রাবণ রাজা, – রাবণের সাজসজ্জার কারণ কী?

 

ঘ] রচনাধর্মী প্রশ্ন: ( প্রশ্নমানঃ05)

1] “নমি পুত্র পিতার চরণে, / করজোড়ে কহিলা, ” পিতা ও পুত্রের পরিচয় পাঠালেন পিতা পুত্রের কথোপকথন নিজের ভাষায় লেখো।

2]অভিষেক কবিতা অবলম্বনে ইন্দ্রজিৎ চরিত্রটি বর্ণনা করো ।

3]ইন্দ্রজিতের বীরত্ব ও দেশপ্রেমের পরিচয় দাও।

4] ‘ অভিষেক’ কাব্যাংশটির বিষয়বস্তু আলোচনা করে, নামকরণের সার্থকতা বিচার করো?

5] অভিষেক কবিতা অনুসারে রাবণ ও ইংরেজিতে কথোপকথন নিজের ভাষায় লেখো

 

সিরাজদৌলা

ক] সংক্ষিপ্ত উত্তর ভিত্তিক প্রশ্ন ( প্রশ্নমানঃ04)

1] “মাত্র পনেরোটি মাস আমি রাজত্ব করচি, লুৎফা।” – লুৎফা কে? বক্তার পনেরো মাসের রাজত্বের অভিজ্ঞতাটি কেমন ছিল?

2] ‘তোমাদের কাছে আমি লজ্জিত।’ – কে লজ্জিত? সে কেন লজ্জিত তা বুঝিয়ে দাও।

3] ‘সিরাজদ্দৌলা’ নাট্যাংশে সিরাজদ্দৌলার চরিত্রবৈশিষ্ট্য আলোচনা করো।

4] ‘আমার রাজ্য নাই, তাই আমার কাছে রাজনীতিও নাই, আছে শুধু প্রতিহিংশা’— উক্তির আলোকে বক্তার চরিত্র বিশ্লেষণ করো।

5] ‘আমার এই অক্ষমতার জন্যে তোমরা আমাকে ক্ষমা করো।” – বস্তা কে?কেন তিনি একথা বলেছেন? কোন অক্ষমতার কথা তিনি ব্যক্ত করেছেন?

6]’ তোমাদের কাছে আমি লজ্জিত— বক্তা কাদের কাছে কেন লজ্জিত?

7]’এই পত্র সম্বন্ধে তুমি কিছু জান?’ — বক্তা কাকে কথা বলেছেন? পত্রটির বিষয়বস্তু ও গুরুত্ব লেখ।

8] ‘ওর নিঃশ্বাসে বিষ, দৃষ্টিতে আগুন, অঙ্গ সঞ্চালনে ভূমিকম্প’ —উক্তির আলোকে ঘসেটি চরিত্রটি আলোচনা করো।

প্রলয়োল্লাস

ক] বাহুবিকল্পনিও প্রশ্ন ( প্রশ্নমানঃ01)

 

1] “ভেঙে আবার গড়তে জানে সে চিরসুন্দর!”-‘চিরসুন্দর’ বলা হয়েছে –

(ক) সূর্যকে

(খ) ব্রহ্মাকে

(গ) শিবকে

(ঘ) মহাকালকে

Ans: (গ) শিবকে

2] ‘তোরা সব জয়ধ্বনি কর ‘–’পতিটি ‘প্রলয়োল্লাস’ কবিতায় কতবার আছে?

(ক) আঠারো,

(খ) উনিশ,

(গ) বৃত্তি,

(খ) একুশ

3] কবি “ওই নূতনের কেতন’ বলেছেন–

(ক) কালবৈশাখীর ঝড়কে,

(খ) রবির বহ্নিজ্বালাকে,

(গ) অট্টরোলের হট্টগোলকে,

(ঘ) বিশ্বমায়ের আসনকে

 

4] ‘আলো তার ভরবে এবার ঘর।’ যার আলোয় ঘর ভরবে –

(ক) সূর্যের,

(খ) চন্দ্রের,

(গ) ধূমকেতুর,

(খ) উচ্চার

 

5] বিশম্বরের জটায় হাসে —

(ক) সর্বনাশী জ্বালামুখী ধূমকেতু,

(খ) শিশু-চাঁদের কর,

(গ) সপ্ত মহাসিন্ধু,

(ঘ) দ্বাদশ রবির বহ্নিজ্বালা

6] উল্কা ফুটায় নীল খিলানে ‘নীল খিলান’ বলতে বোঝানো হয়েছে —

(ক) মহাকাশকে,

(খ) প্রাসাদকে,

(গ) গাছপালাকে,

(ঘ) আকাশকে

7] ‘প্রলয়োল্লাস’ কবিতাটির মূল কাব্যগ্রন্থের নাম কী ?

(ক) সর্বহারা

(খ) অগ্নিবীণা

(গ) ফণীমনসা

(ঘ) সাম্যবাদী

8] ‘সর্বনাশী জ্বালামুখী’ কাকে বলা হয়েছে ?

(ক) সূর্যকে

(খ) নক্ষত্রকে

(গ) চন্দ্রকে

(ঘ) ধূমকেতুকে

9] ‘প্রলয়োল্লাস’ কবিতায় ‘চিরসুন্দর’ হলেন —

(ক) শিং,

(খ) শক্তি

(খ) কালবৈশাখী

(খ) বিশওমাতা

10]’সপ্ত মহাসিন্ধু দোলে / কপোলতলে ! — ‘কপোল’ শব্দের অর্থ কী ?

(ক) চিবুক

(খ) কপাল

(গ) গলা

(ঘ) গন্ডদেশ বা গাল

 

খ] অতি- সংক্ষিপ্ত উত্তরধর্মী প্রশ্ন (প্রশ্নমানঃ01)

 

1] ‘বন্ধুরা প্রদীপ তুলে ধর।’ — কবি কেন এই আহ্বান জানিয়েছেন?

2] ‘মাভৈঃ মাভৈঃ’ – ‘মাভৈঃ’ শব্দটির অর্থ কী?

3] ‘সিন্ধুপারের সিংহদ্বারে’ কথাটির অর্থ কী?

4] ‘ তোরা সব জয়ধ্বনি কর।’— কবি কাদের জয়ধ্বনি করতে বলেছেন?

5] ‘কালবোশেখির ঝড়’-কে ‘নূতনের কেতন’ বলা হয়েছে কেন?

6] ‘ওই ভাঙা-গড়া খেলা যে তার ‘ভাঙা-গড়া খেলা’ বলতে কবিতায় কী বোঝানো হয়েছে?

7] ‘ আসছে এবার অনাগত প্রলয়-নেশার নৃত্য পাগল’ – ‘নৃত্য পাগল’ কে?

8] ‘সপ্ত মহাসিন্ধু দোলে’ – ‘সপ্ত মহাসিন্ধু’ কী কী?

9] “বজ্রশিখার মশাল জ্বেলে আসছে ভয়ংকর!”—উদ্ধৃতাংশটিতে কবি ‘ভয়ংকর অভিধায় কাকে নির্দেশ করতে চেয়েছেন?

10] “দিগম্বরের জটায় হাসে’ – কে, কেন হাসে?

গ] সংক্ষিপ্ত উত্তর ভিত্তিক প্রশ্ন ( প্রশ্নমানঃ03)

1] “বিন্দু তাহার নয়নজলে / সপ্ত মহাসিন্ধু দোলে’ কার কথা বলা হয়েছে। উপমাটির অর্থ পরিস্ফুট করো।

2] “আসছে নবীন — জীবনহারা অ-সুন্দরে করতে ছেদন !” — উদ্ধৃতিটির তাৎপর্য লেখো ।

3] ‘এই নূতনের কেতন ওড়ে’ – উৎস নির্দেশ করো। ‘নূতনের কেতন’ বলতে কবি কী বুঝিয়েছেন?

4] ‘ আসছে ভয়ংকর।’ — ভয়ংকরের আগমন পরিস্থিতিটি ‘প্রলয়োল্লাস’ কবিতা অনুসরণে আলোচনা করো।

5] ‘প্রলয়োল্লাস’ কবিতায় প্রলয় কীভাবে উল্লাসের কারণ হয়ে উঠেছে, তা বর্ণনা করো।

6] ‘আসছে এবার অনাগত প্রলয়-নেশার নৃত্য পাগল, – অনাগতের পরিছয় দাও?

7] ‘এবার মহানিশার শেষে / আসবে ঊষা অৰুণ হেসে’ ‘মহানিশা’ কী? এই মন্তব্যের মধ্য দিয়ে কবি কীসের ইঙ্গিতে দিয়েছেন?

ঘ] রচনাধর্মী প্রশ্ন: ( প্রশ্নমানঃ05)

 

1] ‘প্রলয়োল্লাস’ কবিতার মূল ভাববস্তু আলোচনা করো।

See also  ঘড়ির দোকানের ঘড়িগুলিতে সবসময় ১০টা বেজে ১০ দেখায় কেন? জানুন আসল কারণ।

2] ‘প্রলয়োল্লাস’ কবিতার পটভূমি আলোচনা করে কবিমানসের পরিচয় দাও?

3] মাভৈঃ মাভৈঃ ! জগৎ জুড়ে প্রলয় এবার ঘনিয়ে আসে— প্রলয় কিভাবে ঘনিয়ে এসেছিল তা নিজের ভাষায় লেখো।

অথবা, ‘আসছে নবীন জীবনহারা অসুন্দর করতে ছেদন’—নবীন কিভাবে এসেছিল তা নিজের ভাষায় বর্ণনা করো।

4] ‘ওই ভাঙা-গড়া খেলা যে তার কিসের তবে ডর?’ – কবির এই মন্তব্যটি কোন ইঙ্গিতবাহী?

5] ‘ভেঙে আবার গড়তে জানি সে’—কে জানে? ‘ভেঙে আবার গড়তে জানা’—- বলতে কি বোঝানো হয়েছে?

6] “বজ্রশিখার মশাল জ্বেলে আসছে ভয়ংকর।” – এখানে কাকে, কেন ‘ভয়ংকর’ বলা হয়েছে। ‘ভয়ংকর’ কীভাবে আসছে?

7] ‘ প্রলয়োল্লাস’ কবিতাটিকে প্রতিবাদধর্মী কবিতা বলা যায় কিনা যুক্তিসহ আলোচনা করো? অথবা, ‘ প্রলয়োল্লাস’ কবিতায় কোভিদ আশাবাদ কিভাবে ফুটে উঠেছে তা আলোচনা করো।

 

পথের দাবি

ক] বাহুবিকল্পনিও প্রশ্ন ( প্রশ্নমানঃ01)

1] অপূর্বর পিতার বন্ধু হলেন

(ক) জগদীশবাবু,

(খ) রামদাস,

(গ) নিমাইবাবু,

(ঘ) গিরীশ মহাপাত্র।

2] গিরীশ মহাপাত্রের সাথে অপূর্বর পুনরায় কোথায় দেখা হয়েছিল-

(ক) পুলিশ-স্টেশনে,

(খ) জাহাজ ঘাটায়,

(গ) রেল স্টেশনে,

(খ) বিমান বন্দরে।

3] ‘যাকে খুঁজছেন সে যে এ নয়, তার আমি জামিন হতে পারি।’ – বক্তা হলেন–

(ক) রামদাস,

(খ) অপূর্ব,

(গ) জগদীশবাবু,

(ঘ) নিমাইবাবু।

4] ‘তুমি তো ইউরোপিয়ান নও।’ কে অপূর্বকে কথাটি বলেছিলেন?

(ক) বর্মার জেলাশাসক,

(খ) বর্মার সাব-ইনস্পেক্টর,

(গ) রেঙ্গুনের সাব-ইনস্পেক্টর,

(খ) বড়োসাহেব।

5] পোলিটিক্যাল সাসপেক্টের নাম –

(ক) অপূর্ব রায়,

(খ) সব্যসাচী চক্রবর্তী,

(গ) সব্যসাচী মল্লিক,

(ঘ) নিমাইবাবু।

 

6] কিন্তু বুনো হাঁস ধরাই যে এদের কাজ;’ – বক্তা হলেন –

(ক) অপূর্ব,

(খ) রামদাস,

(গ) জগদীশবাবু,

(ঘ) নিমাইবাবু

7] ‘তবে এ বস্তুটি পকেটে কেন?’ – বস্তুটি হল –

(ক) একটি টাকা,

(খ) কাঠের পেনসিল,

(গ) গাঁজার কলিকা,

(খ) একটি ক্ষেত্র

8] “দয়ার সাগর। পরকে সেজে দি নিজে খাইনে।” বক্তা হলেন–

(ক) জগদীশবাবু,

(খ) নিমাইবাবু,

(গ) অপূর্ব,

(ঘ) গিরীশ মহাপাত্র

9] সব্যসাচী মল্লিকের চোখের দৃষ্টিতে কী প্রবেশ করতে সাহস করে না? –

(ক) জরা,

(খ) মৃত্যু,

(গ) আনন্দ,

(খ) দুঃখ

 

খ] অতি- সংক্ষিপ্ত উত্তরধর্মী প্রশ্ন (প্রশ্নমানঃ01)

1] গিরীশ মহাপাত্রের পকেটে কী কী পাওয়া যায়?

2] খ্রিস্টান মেয়েটি সম্পর্কে অপূর্বর কী ধারণা হয়েছিল?

3] ‘ভালো’ যাবার অনুরোধে অপূর্ব সম্মত হয়েছিল কেন?

4] “তবে এ বস্তুটি পকেটে কেন?” – কোন্ ‘বস্তুটি’ পকেটে ছিল?

5] ‘পোলিটিক্যাল সাসপেক্ট’ বলতে তুমি কী বোঝো?

6] “নিমাইবাবু চুপ করিয়া রহিলেন।” – নিমাইবাবুর চুপ করে থাকার কারণ কী?

7] অপূর্বের ঘরের চুরির ঘটনায় কার যোগ থাকা সম্ভব বলে তুমি মনে করো?

8] “কিন্তু ইহা যে কতবড়ো ভ্রম তাহা কয়েকটা স্টেশন পরেই সে অনুভব করিল।” — ‘ভ্রমটি কী?

 

গ] সংক্ষিপ্ত উত্তর ভিত্তিক প্রশ্ন ( প্রশ্নমানঃ03)

1] ‘ ঘটনা তো আমাকে বলেন নি।’- বক্তা কাকে একথা বলেছেন। কোন ঘটনার কথা বন্ধা আগে শোনেননি।

2] ‘পথের দাবী’ উপন্যাসে অপূর্বর মধ্যে যে দেশপ্রেমের উদয় হয়েছে, তা আলোচনা করো।

3] ‘এ লোকটিকে আপনি কোনো কথা জিজ্ঞেস না করেই ছেড়ে দিন,’ – লোকটি কে? তাকে কোনো কথা জিজ্ঞেস না করেই ছেড়ে দেওয়ার কথা বলা হয়েছে কেন?

4] ‘দেখো জগদীশ, কীপ সদাশয় ব্যপ্তি ইনি।’ – ব্যক্তিটিকে সদাশয় বলে বাচ্চা করা হয়েছে কেন?

5] ‘মনে হলো দুঃখে লজ্জায় ঘৃণায় নিজেই যেন মাটির সঙ্গে মিশিয়ে যাই’- কোন কথা মনে পড়লে অপূর্বর এমন অনুভূতি হয়।

6] ‘এত বড়ো বন্ধু। -কাকে, কেন এতো বড়ো বন্ধু বলা হয়েছে?

7] “তার আমি জামিন হতে পারি” – বক্তা কেন জামিন হতে চেয়েছেন।

 

ঘ] রচনাধর্মী প্রশ্ন: ( প্রশ্নমানঃ05)

1] ‘বাবুজি, এসব কথা বলার দুঃখ আছে। – বন্ধা কে? কোন্ কথার পরিপ্রেক্ষিতে সে একথা বলেছে?

2] ‘পথের দাবী’ উপন্যাসের যে অংশ তোমাদের পাঠ্য, তা অনুসরণে অপূর্ব চরিত্রটি আলোচনা করো।

3] “বাবুটির স্বাস্থ্য গেছে কিন্তু শখ ষোলোআনাই বজায় আছে।” – বাবুটি কে? তার সাজসজ্জার পরিচয় দাও।

4] ‘তাহার পরিচ্ছদের প্রতি দৃষ্টিপাত করিয়া মুখ ফিরাইয়া হাসি গোপন করিল।” – কে হাসি গোপন করল। তার হাসি পাওয়ার কারণ কী ?

5] ‘পোলিটিক্যাল সাসপেক্ট সব্যসাচী মল্লিককে নিমাইবাবুর সম্মুখে হাজির করা হইল।’ – ‘পোলিটিক্যাল সাসপেক্ট” কথাটির অর্থ কী? তাকে জিজ্ঞাসাবাদের সময় কোন্ পরিস্থিতি তৈরি হল?

 

সিন্ধুতীরে

ক] বাহুবিকল্পনিও প্রশ্ন ( প্রশ্নমানঃ01)

1] “কন্যারে ফেলিল যথা” – ‘কন্যা’র নাম কী? –

(ক) পদ্মাবতী,

(খ) ময়না,

(গ) চন্দ্রাবতী,

(ঘ) চন্দ্রাণী

2] ‘সিন্ধুতীরে’ কাব্যাংশটি কোন্ কাব্যগ্রন্থের অন্তর্গত ?

(ক) লোরচন্দ্রাণী

(খ) পদ্মাবতী

(গ) সতীময়না

(ঘ) তোহফা

3] ‘সখী সবে আজ্ঞা দিল’ – সখীদের কে আজ্ঞা দিয়েছিল? –

(ক) পদ্মা,

(খ) পদ্মাবতী,

(গ) বিপুন্নলা,

(ঘ) রোহিণী

4] আলাওল কোন রাজসভার কবি? –

(ক) কৃষ্ণনগরের,

(খ) গৌড়ের,

(গ) আরাকানের,

(ঘ) বর্ধমানের

5] ‘সিন্ধুতীরে’ কবিতায় কবি নিজেকে কোন্ বিশেষণ দিয়েছেন?

(ক) মোহস্ত

(খ) হীন

(গ) গুনি

(ঘ) দুখিনি

 

6] ‘সমুদ্রের নাও ভাঙ্গিল’– সমুদ্রের নাও ভেঙে ছিল—

(ক) সমুদ্রের ঢেউ

(খ) সমুদ্রের ঝড়

(গ) প্রবল বাতাস

(ঘ) জলোচ্ছ্বাস

7] ‘সমুদ্রনৃপতি সুতা’ হলেন–

(ক) পদ্মা

(খ) পদ্মাবতী

(গ) ইন্দিরা

(ঘ) উমা

 

 

খ] অতি- সংক্ষিপ্ত উত্তরধর্মী প্রশ্ন (প্রশ্নমানঃ01)

1] ‘অনুমান করে নিজ চিতে’ – অনুমান কী?

2] ‘বিধি মোরে না কর নৈরাশ।’ — বক্তা কোন্ বিষয়ে নিরাশ হতে চান না?

3] “দেখিয়া রূপের কলা বিস্মিত হইল বালা / অনুমান করে নিজ চিতে।” – ‘বালা’ কী অনুমান করেছিল।

4] “কন্যারে ফেলিল যথা” – কথাটির অর্থ কী?

5] ‘পঞ্চকন্যা পাইলা চেতন।’ পঞ্চকন্যা কীভাবে চেতনা ফিরে পেল?

6] ‘সিন্ধুতীরে’ কাব্যাংশটি কোন্ কাব্যগ্রন্থের কোন্ খন্ড থেকে নেওয়া হয়েছে?

7] ‘বিধি মরে না করো নৈরাশ/ “বাহুরক কন্যার জীবন’/ ‘কৃপা করো নিরন”—আবেদনের কারণ কী?

8] “সিন্ধুতীরে রহিছে মাস।।” – ‘মাঞ্জুস’ শব্দের অর্থ কী?

9] পদ্মা কোন্ পদ্ধতিতে পঞ্চকন্যার চিকিৎসা করেছিলেন?

10] ‘সখি সবে আজ্ঞা দিল”— সখিদের কী আজ্ঞা দেওয়া হয়েছিল?

11] পদ্মাবতীকে সুস্থ করে তুলতে কী কী ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছিল?

12] ‘তুরিত গমনে আসি’ – তুরিত গমনে এসে পদ্মা কী দেখতে পেয়েছিলেন?

 

গ] সংক্ষিপ্ত উত্তর ভিত্তিক প্রশ্ন ( প্রশ্নমানঃ03)

 

1] ‘দিব্য পুরী সমুদ্র মাঝার’— কোন্ স্থানের কথা বলা হয়েছে? সেই স্থানটির বর্ণনা দাও।

2]’বিস্মিত হইল বালা’ – বালা কে? তাঁর বিস্ময়ের কারণ কী?

3] ‘তথা কন্যা থাকে সর্বক্ষণ’-কন্যার নাম কী? সে সর্বক্ষণ যে স্থানে থাকে তার বর্ণনা দাও।

4] ‘কন্যারে ফেলিলা যথা— কন্যাটি কে? তাকে যে স্থানে ফেলা হয়েছিল তার বর্ণনা দাও।

5] ‘সখি সবে আজ্ঞা দিল”— সখিদের কে? কী আজ্ঞা দিয়েছিল?

6] ‘মোহন্ত আরতি শুনি / হীন আলাওল সুরচন’ – এই মন্তব্যটির প্রাসঙ্গিকতা উল্লেখ করো।

7] ‘ অতি মনোহর দেশ’- কোন্ কবিতাংশ থেকে গৃহীত? মনোহর দেশটির বর্ণনা দাও।

8] ‘যদি হৈল সময় প্রত্যুষ।’ – উৎস নির্দেশ করো। প্রত্যূষ হলে কোনো উপকার হত কী ?

9] ‘পঞ্চকন্যা পাইলা চেতন।’ পঞ্চকন্যা কারা? তারা কীভাবে চেতনা ফিরে পেল?

10] ‘সিন্ধুতীরে দেখি দিব্যস্থান।’ – সিন্ধুতীরকে দিব্যস্থান বলা হয়েছে কেন বুঝিয়ে দাও।

11] ‘কৃপা কর নিরঞ্জন’ – নিরঞ্জন কে? তাঁর কাছে কে, কেন কৃপা প্রার্থনা করেছিল?

 

ঘ] রচনাধর্মী প্রশ্ন: ( প্রশ্নমানঃ05)

1]’ সিন্ধুতীরে দেখি দিব্যস্থান’ – কে এই দিব্যস্থান দেখলেন? দেখে তিনি কী করলেন?

2] ‘পঞ্চকন্যা পাইলা চেতন।’ — পঞ্চকন্যার পরিচয় দাও। তারা কীভাবে চেতনা ফিরে পেল, তা নিজের ভাষায় লেখো।

3] ‘চিকিৎসিমু প্রাণপণ’–কে কাদের কীভাবে চিকিৎসা করেছিলেন?

4] ‘দত্ত চারি এই মতে/বহু যত্নে চিকিৎসিতে’—এই চিকিৎসা প্রণালীর বর্ণনা দাও।

5] সমুদ্র নৃপতি সুতা / পদ্মা নামে গুণযুতা’— সমুদ্রকন্যা পদ্মার গুণ বা আচার-বিচার আলোচনা করো।

6] ‘সিন্ধুতীরে’ কাব্যাংশ অবলম্বনে নানা প্রাকৃতিক দৃশ্যের বর্ণনা তোমার ভাষায় লেখো।

7] ‘সমুদ্রকন্যা পদ্মার চরিত্রবৈশিষ্ট্য ‘সিন্ধুতীরে’ কাব্যাংশ অবলম্বনে আলোচনা করো।

 

অদল বদল

ক] বাহুবিকল্পনিও প্রশ্ন ( প্রশ্নমানঃ01)

1] অমৃত এবং ইসাবের জামা বদলানোর বিষয়টি ঘটেছিল –

(ক) মহরমের দিন,

(খ) পুজোর দিন,

(গ) ঈদের দিন,

(খ) হোলির দিন।

2] অমৃতের সঙ্গে কুস্তি লড়তে চেয়েছিল কে? –

(ক) ইসাব,

(খ) কালিয়া,

(গ) ইসাবের বাবা,

(ঘ) অমৃতের বাবা

3] অমৃত ইসাব এই দুজনের বাবা-ই পেশায়—

(ক) রাজমিস্ত্রি,

(খ) শ্রমিক,

(গ) চাষি,

(খ) ছোটো ব্যবসায়ী

4] হোলির দিন ছেলেরা অমৃত আর ইসাবকে একরকম পোশাকে দেখে কী করতে বলেছিল?

(ক) ছবি আঁকতে,

(খ) হোলি খেলতে,

(গ) কুস্তি লড়তে,

(খ) ফুটবল খেলতে

5] অমৃতের মায়ের নাম ছিল –

(ক) নিরুপমা,

(খ) অনুপমা,

(গ) সুমিতা,

(ঘ) বাহালি

6] ‘অদল বদল’ গল্পে ফতোয়া জারি করেছিল—

(ক) অমৃত

(খ) গ্রাম প্রধান

(গ) ইসাব

(ঘ) কালিয়া

7] ইসাবের বাবা টাকা ধার করেছিল—

(ক) সুদখোরের কাছ থেকে

(খ) জমিদারের কাছ থেকে

(গ) গ্রাম প্রধানের কাছ থেকে

(ঘ) মালিকের কাছ থেকে

8] ইসাবের বাবার নাম কী?

(ক) মনসুর,

(খ) ওসমান,

(গ) হাবিব,

(ঘ) হাসান

9] অমৃত কোথায় লুকিয়েছিল? –

(ক) খেলার মাঠে,

(খ) পোড়ো বাড়িতে,

(গ) ঘন জঙ্গলে,

(খ) ইসাবের বাবার গোয়াল ঘরে।

10] অমৃতের বয়স—

(ক) দশ বছর,

(খ) বারো বছর,

(গ) চোদ্দো বছর,

(ঘ) ছয় বছর।

 

খ] অতি- সংক্ষিপ্ত উত্তরধর্মী প্রশ্ন (প্রশ্নমানঃ01)

1] ‘মা ওকে অনেক বুঝিয়েছিল,’ – মা অমৃতকে কী বুঝিয়েছিলেন?

2] ‘অদল বদল’ গল্পটি কে বাংলায় তরজমা করেছেন?

3] ‘আবেগ ভরা গলায় হাসান বললেন’—- হাসান কী বললেন?

4] ‘ইসাবের মনে পড়ল’ – কোন্ কথা মনে পড়লো ?

5] “কিছুটা যেতেই অমৃতের নজরে এলো – অমৃতের কী নজরে এসেছিল?

6] ‘অমৃতের বুক ঢিপঢিপ করছিল’— কেন?

7] ‘অমৃত এতেও পিছপা হতে রাজি নয়’—’এতেও’ বলতে কী বোঝানো হয়েছে?

8] ‘আমার সঙ্গে আয় – অমৃত ইসাবকে এমন নির্দেশ দিল কেন?

9] ‘ তাহলে মা আমাকে ঠ্যাঙ্গাবে’— মা কেন ঠ্যাঙাবে বলে বক্তা মনে করেছে?

10] ‘উনি ঘোষণা করলেন’—উনি কী ঘোষণা করলেন?

 

গ] সংক্ষিপ্ত উত্তর ভিত্তিক প্রশ্ন ( প্রশ্নমানঃ03)

 

1] তামাশা করে হলেও এখন ব্যাপারটা ঘোরালো হয়ে পড়েছে—-তামাশাটি কী ছিল? তা কীভাবে ঘোরালো হয়ে পড়েছিল ?

2] ‘ছেলে দুটির সবই একরকম’— ছেলে দুটি কারা? তাদের সম্পর্কে এই মন্তব্যের কারণ কী?

3] ‘আয় আমি তোর সঙ্গে লড়বো–কে, কাকে এ কথা বলেছিল ? এই লড়াইয়ের পরিণতি কী হয়েছিল?

4] ‘কালিয়া ইতস্তত করছিল’— কেন কালিয়া ইতস্তত করছিল? এর পরে কী ঘটেছিল ?

5] ‘মাটিতে পড়ে গিয়ে চেঁচাতে লাগলো-কার, কখন এমন অবস্থা হয়েছিল? তারপর কী ঘটেছিল?

6] “উনি দশ বছরের অমৃতকে জড়িয়ে ধরলেন।” – ‘উনি’ কে? কেন অমৃতকে উনি জড়িয়ে ধরলেন।

7] ‘অমৃত ফতোয়া জারি করে দিল’ – অমৃতের জারি করা ফতোয়াটি কী?

8] ‘ইসাব ও অমৃত নতুন জামা পরে বাড়ি থেকে বেরিয়েছিল’– তারপর কী কী ঘটেছিল তা গুছিয়ে লেখো।

9] “বলতে গেলে ছেলে দুটির সবই একরকম, তফাৎ শুধু এই যে’ – ছেলে দুটো কে কে? তাদের মধ্যে মিল ও অমিল উল্লেখ করো।

10] ‘এই বলে সে অমৃতকে খোলা মাঠে নিয়ে এল’- সে কে? কী বলে কেন সে অমৃতকে খোলা মাঠে নিয়ে এসেছিল ?

 

ঘ] রচনাধর্মী প্রশ্ন: ( প্রশ্নমানঃ05)

1] ‘পাড়া পড়শী মায়ের দল পাল্টানোর গল্প শোনার জন্য ঘিরে দাঁড়ালো? – কোন্ বিষয়ের গল্প পাল্টানো বলেছিল? গল্পটি নিজের ভাষায় লেখো। এই গল্প সকলের মধ্যে কী প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি করেছিল?

2] ‘উনি অল্প কথায় ছেলেদের জামা বদল-এর গল্পটা বললেন’—গল্পটি নিজের ভাষায় লেখো।

3] “অমৃত সত্যি তার বাবা-মাকে খুব জ্বালিয়েছিল।” — অমৃত কীভাবে বাবা-মাকে জ্বালাতন করেছিল?

4] “ও আমা শিখিয়েছে, খাঁটি জিনিস কাকে বলে।” – কে, কাকে শিখিয়েছে? ‘খাঁটি জিনিস’ বলতে কী বোঝানো হয়েছে।

5] ‘অদল বদল’ গল্প অবলম্বনে অমৃত ইসাবের বন্ধুত্বের পরিচয় দাও।

6] ‘অদল বদল’ গল্পে সম্প্রীতির যে ছবি ফুটে উঠেছে তা আলোচনা করো।

 

বাংলা ভাষার বিজ্ঞান

ক] বাহুবিকল্পনিও প্রশ্ন ( প্রশ্নমানঃ01)

1] লাউ-কুমড়ো জাতীয় গাছে ফুল হয়।

(ক) দু’রকম,

(খ) একরকম,

(গ) পাঁচরকম,

(ঘ) তিন রকম

2] তাদের নতুন করে শিখতে হচ্ছে—কী শিখতে হচ্ছে?

(ক) ইংরেজি

(খ) পরিভাষা

(গ) বাংলা

(ঘ) বিজ্ঞান

3] রাজশেখর বসুর ছদ্মনাম ছিল—

(ক) অন্নদাশঙ্কর রায়

(খ) পরশুরাম

(গ) নিখিল সরকার

(ঘ) বলাইচাঁদ

5] পপুলার সাইন্স লেখা সুসাধ্য—

(ক) ইউরোপ-আমেরিকায়

(খ) ইউরোপ-আফ্রিকায়

(গ) আমেরিকা-ইংল্যান্ডে

(ঘ) ভারতে

 

6] বৈজ্ঞানিক প্রসঙ্গের ভাষা কেমন হওয়া আবশ্যক?

(ক) সহজ-সরল

(খ) সরল ও স্পষ্ট

(গ) তথ্যসমৃদ্ধ

(ঘ) গুরুগম্ভীর

7] ‘sensitive person’-এর বাংলা অর্থ হওয়া উচিত

(ক) অভিমানী

(খ) বাধা প্রবণ

(গ) অহংকারী

(ঘ) উত্তেজনা প্রবণ

8] ‘অরণ্যের রোদন’ এই কথাটির ব্যঞ্জনাগত অর্থ হল—

(ক) বনবাসীদের কান্না

(খ) বনের পশুদের কান্না

(গ) নিষ্ফল গাছ

(ঘ) নিষ্ফল খেদ

9] ‘Sensitized Paper’-এর অনুবাদ কী লিখলে ঠিক হয় বলে প্রাবন্ধিক মনে করেছেন?

(ক) স্পর্শকাতর কাগজ,

(খ) সুবেদী কাগজ,

(গ) সুগ্রাহী কাগজ,

(ঘ) ব্যথাপ্রবণ কাগজ

10] ‘অল্পবিদ্যা ভয়ংকরী’ প্রবাদটির সত্যতা মেলে—

(ক) বৈজ্ঞানিক প্রবন্ধে

(খ) অনুবাদ প্রশ্নে

(গ) সাময়িক পত্রে

(ঘ) সংবাদপত্রে

 

খ] অতি- সংক্ষিপ্ত উত্তরধর্মী প্রশ্ন (প্রশ্নমানঃ01)

1] ‘এই কথাটি সকল লেখকের মনে রাখা উচিত’—কথাটি কী?

2] ‘এই কথাটি সকল লেখকের মনে রাখা উচিত’—কথাটি কী?

3] ‘এ ধারণা পুরোপুরি ঠিক নয়’ –কোন্ ধারণা?

4] লক্ষণ কী? উদাহরণ দাও।

5] বাঞ্ছনা কী? উদাহরণ দাও।

6] ‘গুটিকতক ইংরেজি পারিভাষিক শব্দ হয়তো তারা শিখেছে’— – শব্দগুলি কী কী?

7] পরিভাষার উদ্দেশ্য কী?

8] লেখক বৈজ্ঞানিক সাহিত্যে অলংকারের প্রয়োগ কম করতে বলেছেন কেন?

9] “এতে রচনা উৎকট হয়। ” রচনা ‘উৎকট’ হয় কীসে?

10] উৎপ্রেক্ষা ও অতিশয়োক্তি বলতে কী বোঝো

11] ‘অনেক রকম স্থূল তথ্য তাদের জানা থাকতে পারে’— প্রাবন্ধিকের মতে কাদের কোন তথ্য জানা থাকতে পারে?

12] ‘দ্বিতীয় শ্রেণির পাঠক’ বলতে প্রাবন্ধিক রাজশেখর বসু কাদের বুঝিয়েছেন?

13] ‘একটি দোষ প্রায়ই নজরে পড়ে – দোষটি কী?

14] বাংলায় বৈজ্ঞানিক সাহিত্য সুপ্রতিষ্ঠিত হয়নি কেন?

 

গ] সংক্ষিপ্ত উত্তর ভিত্তিক প্রশ্ন ( প্রশ্নমানঃ03)

এখান থেকে কোনো প্রশ্ন নেই।

ঘ] রচনাধর্মী প্রশ্ন: ( প্রশ্নমানঃ05)

1] ‘আমাদের সরকার ক্রমে ক্রমে রাজকার্যে দেশি পরিভাষা চালাচ্ছেন,’ বলে অনেকে অসুবিধার সম্মুখীন হচ্ছেন কেন?

2] ‘আমাদের আলংকারিগণ শব্দের ত্রিবিধ কথা বলেছেন’ ‘শব্দের ত্রিবিধ কথা’ কী? ‘বাংলা ভাষায় বিজ্ঞান’ প্রবন্ধে এই প্রসঙ্গ’ এসেছে কেন? পাওয়া যাবে?

3] ‘বৈজ্ঞানিক সম্পর্ক” বলতে কী বোঝো? বাংলা ভাষায় বৈজ্ঞানিক সন্দর্ভ রচনার জন্য কেমন রচনাপদ্ধতি সরকার বলে মনে করেছেন লেখক?

4] ‘কলিকাতা বিশ্ববিদ্যালয় যে পরিভাষাসমিতি নিযুক্ত করেছিলেন…’—- কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় করে পরিভাষা সমিতি নিযুক্ত করেছিলেন।

5] ‘বাংলা ভাষায় বিজ্ঞান’ প্রবন্ধের নামকরণের সার্থকতা আলোচনা করো।

6] ‘বাংলা ভাষায় বিজ্ঞানচর্চায় এখনও নানা রকম বাধা আছে। – লেখক কোন ধরনের বাধার কথা বলেছেন? কোন্ দোষের কথা বলা হয়েছে?

7] বাংলা ভাষায় বিজ্ঞানচর্চায় এখনো নানারকম বাধা আছে’—বাধাগুলি কী কী? বাধাগুলি দূর করতে লেখক কী কী পরামর্শ দিয়েছেন ?

8] বিজ্ঞান আলোচনার জন্য কোন্ রচনার পদ্ধতি আবশ্যিক বলে প্রাবন্ধিকের মত,তা বিস্তারিত আলোচনা করো।

 

অস্ত্রের বিরুদ্ধে গান

ক] বাহুবিকল্পনিও প্রশ্ন ( প্রশ্নমানঃ01)

 

1] ‘গান তো জানি’–বক্তা কতা গান জানেন?–

(ক) এক্যা দুটো,

(খ) দুটো তিনটে,

(গ)তিনটে চারটে,

(ঘ) চারটে পাঁচটা

 

2] টেশনের কাছে নদীটিকে নদেরটা চেনে –

(ক) পাঁচ বছর ধরে,

(খ) চার বছর ধরে,

(গ) তিন বছর

(ঘ) দু’বছর ধরে

3] ‘বড়ো ভয় করিতে লাগিল’– নদেরচাদের ভয়ের কারণ ছিল-

(ক) অন্ধকার,

(খ) বৃষ্টি,

(গ) নদীর প্রতিহিংসা

(গ) নদী খননে

4] ঋষিবালকের মাথায় গোজা আছে-

(ক) গানের ধর্ম

(খ) ময়ূর পালক

(গ) ত্রিশূল

(ঘ) বুলেট

5] “আঁকড়ে ধরে সে খড়কুটো’—খড়কুটো বলতে বোঝানো হয়েছে-

(ক) কোকিলকে

(খ) একটা দুটো গানকে

(গ) ঋষি বালকে

(ঘ) গায়ক পাখিদের

6] কার পায়ে কবি অস্ত্র সমর্পণ করতে বলেছেন ?

(ক) বিধাতা

(খ) পুলিশ

(গ) সুর

(ঘ) গান

 

খ] অতি- সংক্ষিপ্ত উত্তরধর্মী প্রশ্ন (প্রশ্নমানঃ01)

1] ‘অস্ত্রের বিরুদ্ধে গান’ কবিতাটি কোন মূল কাব্যগ্রন্থ থেকে নেওয়া হয়েছে।

2] ‘গান দাঁড়াল ঋষিবালক’ – কৰিবালক বলতে কাকে বোঝানো হয়েছে?

3] “রক্ত মুছি শুধু গানের গায়ে” – কথাটির অর্থ কী?

4] “গানের বর্ম আজ পরেছি গায়ে”— গানের বর্ম পরিধান করে কবি কোন কাজ করতে পারবেন?

4] ‘অস্ত্রের বিরুদ্ধে গান’ কবিতায় উল্লিখিত পাখিদের নামগুলি বলো।

5] গানের বর্ম পরে কবি কোন্ কাজ করতে পারবেন ?

6] ‘গানের বর্ম আজ পরেছি গায়ে’—কবি গানের বর্ম পরেছেন কেন?

7]“আমার শুধু একটা কোকিল’-কোকিলটি কী করবে?

8] “বর্ম খুলে দেখো আদুড় গায়”‘—কথাটির মাধ্যমে কী বোঝাতে চাওয়া হয়েছে?

9] “রক্ত মুছি গানের গায়ে”—কথাটির অর্থ কী ?

 

গ] সংক্ষিপ্ত উত্তর ভিত্তিক প্রশ্ন ( প্রশ্নমানঃ03)

 

1] ‘রক্ত মুছি গানের গায়ে’— কবি কেন গানের গায়ে রক্ত মোছেন?

2] “গানের বর্ম আজ পরেছি গায়ে” – ‘গানের বর্ম’ বলতে কী বোঝানো হয়েছে তা নিজের ভাষায় লেখো।

3] “আমার শুধু একটা কোকিল / গান ৰাধৰে সহস্ৰ উপায়ে”—’কবি কোকিলকে কেন গুরুত্ব দিয়েছেন? এ কথার মধ্যে দিয়ে কবি কী বোঝাতে চেয়েছেন ?

4] ‘অস্ত্র ফ্যালো, অস্ত্র রাখো’ – কবি কোথায় অস্ত্র রাখতে বলেছেন? তাঁর একথা বলার কারণ কী?

5] ‘মাথায় কত শকুন বা চিল’ – উদ্ধৃতিটির তাৎপর্য বিশ্লেষণ করো।

6] “আমি এখন হাজার হাতে পায়ে’— ‘হাজার হাতে পায়ে এগিয়ে আসা’ বলতে বক্তা কী বুঝিয়েছেন?

7] “ঋষি বালক’— ঋষি বালকের পরিচয় দাও। সে কোন্ ভূমিকায় কখন অবতীর্ণ হবে?

 

See also  ঘড়ির দোকানের ঘড়িগুলিতে সবসময় ১০টা বেজে ১০ দেখায় কেন? জানুন আসল কারণ।

ঘ] রচনাধর্মী প্রশ্ন: ( প্রশ্নমানঃ05)

1] কবি জয় গোস্বামীর অস্ত্রের বিরুদ্ধে গান’ কবিতায় যুদ্ধবিরোধী মনোভাবের যে প্রকাশ ঘটেছে, তা নিজের ভাষায় বিবৃত করো।

2] কবিতার মূলভাব বা বিষয়বস্তু আলোচনা করো।

3] “অস্ত্র রাখো গানের দুটি পায়ে / অস্ত্র ফেলো, অস্ত্র রাখো পায়ে”— কবির কেন এই আহ্বান, এই আবেদনের মধ্যে দিয়ে যে যুদ্ধবিরোধী মানবতার প্রকাশ ঘটেছে তা আলোচনা করো।

4] অস্ত্রের বিরুদ্ধে গান’ কবিতায় ‘বর্ম’ শব্দ দুটি দু’বার আলাদা আলাদা প্রেক্ষাপটে ব্যবহৃত হয়েছে – এই ব্যবহারের যৌক্তিকতা কোথায়?

 

নদীর বিদ্রোহ

ক] বাহুবিকল্পনিও প্রশ্ন ( প্রশ্নমানঃ01)

 

1] অন্ধকারে অতি সাবধানে লাইন ধরিয়া হাঁটতে হাঁটতে নদেরচাদ’-

(ক) বাড়ি ফিরছিল

(খ) স্টেশনের দিকে যাচ্ছি

(গ) নদীর দিকে যাচ্ছিল

(ঘ) নদীর সঙ্গে খেলছিল

2] অন্ধকারে অতি সাবধানে লাইন ধরিয়া হাঁটতে হাঁটতে নদেরচাদ’-

(ক) বাড়ি ফিরছিল

(গ) নদীর দিকে যাচ্ছিল

(খ) স্টেশনের দিকে যাচ্ছিল

(ঘ) নদীর সঙ্গে খেলছিল

 

3] কতক্ষণ বিশ্রামের পর মেঘের নতুন শক্তি সজ্জিত হয়েছিল?

(ক) ঘণ্টাখানেক

(খ) ঘণ্টা দুই

(গ) ঘণ্টা তিনেক

(ঘ) ঘণ্টা চারেক

4] চার বছরের চেনা এই নদীর মূর্তিকে দেখে নদেরচাদের কেমন মনে হল?

(ক) পরিচিত

(খ) অপরিচিত

(গ) সুন্দর

(ঘ) পঙ্কিল

5] নদেরচাদের বয়স-

(ক)২৫ বছর

(খ)৩০ বছর

(গ) ৩৫ বছর

(ঘ) ৩২ বছর

6] নদেরচাদ ছোট্টো স্টেশনটিতে স্টেশন মাস্টারি করেছেন—

(ক) এক বছর

(খ) দুই বছর

(গ) তিন বছর

(ঘ) চার বছর

7] ‘নদের চাঁদ স্তম্ভিত হয়ে গিয়েছিল—

(ক) সামনে থেকে ট্রেন আসতে দেখে

(খ) নদীর ভয়ংকর উন্মত্ত রূপ দেখে

(গ) নদীর বিদ্রোহের কারণ বুঝতে পেরে

(ঘ) তার গ্রামের নদীটিকে শুকিয়ে যেতে দেখে

8]মেঘাচ্ছন্ন আকাশের দিকে চাহিয়া বলিল – কার সম্পর্কে মন্তব্য ?

(ক) স্টেশন মাস্টার

(খ) নদেরচাদ

(গ) নদেরচাদের নতুন সহকারী

(ঘ) চারবছরের পুরোনো সহকারী

9] কিছুক্ষণের জন্য নদেরচাদকে দিশেহারা করিয়া রাখিল’-

(ক) নদীর বিদ্রোহী রূপ

(খ) অশ্রুতপূর্ব শব্দ

(গ) একটা বেদনাদায়ক চেতনা

(ঘ) মুষলধারে বৃষ্টি

 

খ] অতি- সংক্ষিপ্ত উত্তরধর্মী প্রশ্ন (প্রশ্নমানঃ01)

1] ‘নিজের এই পাগলামি তাই যেন আনন্দ উপভোগ করে’—উদ্দিষ্ট ব্যক্তির কোন পাগলামির কথা বলা হয়েছে?

2] ‘নদেরচাদ স্তম্ভিত হইয়া গেল’—স্তম্ভিত হওয়ার কারণ কী?

3] নদীর সঙ্গে খেলা করিবার লোভ সামলাইতে পারিল না- সে কীভাবে খেলা করেছিল?

4] নদেরচাদের মৃত্যু কীভাবে হয়েছিল?

5] ‘একটু মমতা বোধ করিল বটে,’ – উদ্দিষ্ট ব্যক্তি ‘মমতাবোধ কেন করল?

6] “বড়ো ভয় করিতে লাগিল নদেরচাদের। ” – নদেরচাদের কেন ভয় করতে লাগল?

7] নদীর জন্য নদেরচাদের পাগল হওয়া সাজে না কেন?

8] ‘সেইখানে গিয়া বসিল – কোথায় গিয়ে বসেছিল ?/ নদেরচাদ কোথায় বসে রোজ নদীকে দেখতো?

9] ‘প্রায় কাঁদিয়া ফেলিয়াছিল’—সে কেন কেঁদে ফেলেছিল?

10] ‘পারিলেও মানুষ কি তাকে রেহাই দেবে’—কী পারার কথা বলা হয়েছে?

11] ‘পারিলেও মানুষ কি তাকে রেহাই দেবে’—কী পারার কথা বলা হয়েছে?

 

গ] সংক্ষিপ্ত উত্তর ভিত্তিক প্রশ্ন ( প্রশ্নমানঃ03)

1] “নদীর দিকে দৃষ্টিপাত করিয়াই নদেরচাদ স্তম্ভিত হইয়া গেল”— নদেরচাদ কেন স্তম্ভিত হয়েছিল ?

2] “এক একখানি পাতা ছিঁড়িয়া মুমড়াইয়া মোচড়াইয়া জলে ফেলিয়া দিতে লাগিল” – কীসের পাতা ছেঁড়ার কথা বলা হয়েছে? কেন তা জলে ফেলা হয়েছিল ?

3] নদেরচাদের ভারি আমোদবোধ হইতে লাগিল”— নদেরচাদের আমোদবোধ হওয়ার কারণ কী? তারপর সে কী করেছিল?

4] “নদীর বিদ্রোহের কারণ সে বুঝিতে পারিয়াছে”–কে বুঝতে পেরেছে? নদীর বিদ্রোহের কারণটি কী?

5] ‘নিজের এই পাগলামীতে যেন আনন্দই উপভোগ করে কার কোন্ পাগলামির কথা বলা হয়েছে?

6] “ চোখের পলকে কোথায় যে অদৃশ্য হইয়া গেল চিঠিখানা”— কোন্ চিঠির কথা বলা হয়েছে? সেটি কীভাবে অদৃশ্য হয়েছিল?

7] ‘আজ তার মনে হইল কী প্রয়োজন ছিল এই ব্রিজের কার’— কেন এমন মনে হয়েছিল?

8] ‘আমি চলিলাম হে – কে, কখন এ কথাটি বলেছিলেন?’— বক্তা কোথায় গিয়েছিলেন ?

9] “চেনা নদীর মূর্তিকে তাই যেন আরো বেশি ভয়ঙ্কর আরো বেশী অপরিচিত মনে হইল”– বা কে? তার কেন এমন মনে হয়েছিল?

10] নদেরচাদের দেশের নদী ও কর্মক্ষেত্রের নদীটির মধ্যে একটি তুলনামূলক আলোচনা করো?

11] ‘কিন্তু পারিবে কি?’ – কী পারা নিয়ে নদেরচাঁদ সংশয় প্রকাশ করেছে। সংশয়ের কারণ কী ছিল?

12] “ নদীর বিদ্রোহের কারণ সে বুঝিতে পরিয়াছে।” – নদীর বিদ্রোহের কারণ কী ছিল? সে কীভাবে তা বুঝতে পেরেছিল।

13] “নদীর জন্য নদেরচাদের এত মায়া একটু অস্বাভাবিক” – নদীর প্রতি নদেরচাদের অস্বাভাবিক মায়ার দৃষ্টান্ত দাও।

14] “নদীকে এভাবে ভালোবাসার একটি কৈফিয়ৎ নদেরচাদ দিতে পারে” কৈফিয়ৎটি কী? তার ভালোবাসার পরিচয় দাও।

15] “সে স্বাভাবিক গতিতে বাহিয়া যাইবার পথ করিয়া লইতে চায়। কিন্তু পারবে কি?”— বক্তার মনে কেন এই সন্দেহ? এ প্রসঙ্গে তার কী মনে হয়েছিল ?

16] “একটু মমতাবোধ করিল বটে, কিন্তু নদীর সঙ্গে খেলা করার লোভটা সে সামলাইতে পারিল না”— কীসের প্রতি এই মমতা? লোভ সামলাতে না পেরে বক্তা কী করেছিল?

 

ঘ] রচনাধর্মী প্রশ্ন: ( প্রশ্নমানঃ05)

1] ‘নিজের এই পাগলামীতে যেন আনন্দ উপভোগ করে’—কার পাগলামির কথা বলা হয়েছে?

2] ‘নদীর বিদ্রোহ’ গল্পে নদেরচাদ একটি ব্যতিক্রমী চরিত্র যুক্তিসহ আলোচনা করো।

3] “নদীর বিদ্রোহের কারণ সে বুঝিতে পারিয়াছে।” — বাঝানো হয়েছে? বক্তা এই বিদ্রোহের কারণ বলতে কী অনুমান করেছিলেন।

4] ‘নদীর বিদ্রোহ’ গল্প অবলম্বনে নদীর প্রতি নদেরচাদের অকৃত্রিম ভালোবাসার পরিচয় দাও।

5] নদীর বিদ্রোহ’ গল্প অবলম্বনে নদেরচাঁদ চরিত্রটি বিশ্লেষণ করো।

 

কোনি

ক] রচনাধর্মী প্রশ্ন: ( প্রশ্নমানঃ05)

1] ‘কোনি’ উপন্যাস অবলম্বনে সাঁতার প্রশিক্ষক ক্ষিতীশ সিংহের চরিত্র সংক্ষেপে আলোচনা করো।

2] বঞ্ছনার বিরুদ্ধে কোনির জীবনসংগ্রাম আলোচনা করো।

3] “ঘাটে এই এই ভিড়”— ভিড়ের কারণ কী? ঘাটের বর্ণনা দাও।

4] দারিদ্র্য ও বঞ্চনার বিরুদ্ধে কোনির জীবন সংগ্রাম আলোচনা করো।

5]“পরিশ্রম আর ইচ্ছাশক্তির জোরে এক সাধারণ মেয়ের অসাধারণ হয়ে ওঠার কাহিনি হল কোনি” — গল্প অবলম্বনে আলোচনা করো।

6] “আজ বারুণী। গঙ্গায় আজ কাঁচা আমের ছড়াছড়ি”— বারুণী কী? বারুণীর দিনে গঙ্গা ঘাটের পরিচয় দাও।

7] ‘আমার বিরুদ্ধে চার্জগুলো স্পষ্ট করে চিঠিতে বলা নেই’—বক্তার বিরুদ্ধে কী কী চার্জ অভিযোগ উঠেছিল ? বক্তা তার কী জবাব দিয়েছিলেন?

8] ক্ষিতীশের বিরুদ্ধে কী কী অভিযোগ উঠেছিল? ক্ষিতীশ কী জবাব দিয়েছিলেন?

9] টেবলের মুখগুলি উজ্জ্বল হয়ে উঠল – কেন এমন ঘটেছিল ?

10] কোনি চরিত্রটি আলোচনা করো।

11] ‘প্রথম দিকে লীলাবতী বিদ্রোহী হয়েছিল’ লীলাবতী কে? তার বিদ্রোহী হয়ে ওঠার কারণ কী?

12] ‘এভাবে মেডেল জেতার কোনো আনন্দ নেই’- এভাবে বলতে কোনভাবে? বক্তার এই উক্তির কারণ কী? অথবা, তারপর আরেকটি ব্যাপার ঘটল’—কী ব্যাপার ঘটেছিল তা আলোচনা করো।

11] “আজ গঙ্গায় ডাটা”—আজ বলতে কোন্ দিনকে বোঝানো হয়েছে? সেই দিনের গঙ্গা ঘাটের বর্ণনা দাও।

 

ব্যাকরণ

ব্যাকরণ থেকে সাজেশন হুবুহ সম্ভব হয়না। কারণ এখানে প্রশ্নের ধরন কেমন আসবে আগে থাকতে বোঝা যায়না তবে এই অংশ থেকে সহজেই ভালো নম্বর পাওয়া যায়। শুধু এই অংশে বোঝার বিষয়গুলি বর্তমান।ব্যাকরণ থেকে কারক ও অ-কারক সম্পর্ক, সমাস, বাক্য পরিবর্তন, বাচ্য পরিবর্তন, সংলাপ, প্রতিবেদন রচনা, বঙ্গানুবাদ, এবং প্রবন্ধ রচনা পড়তে হবে।

তবে সহজেই সংলাপ, প্রতিবেদন রচনা, বঙ্গানুবাদ, এবং প্রবন্ধ রচনা অংশ থেকে অনেক সাজেশন পাওয়া যায়। নিন্মে আমরা মাধ্যমিক ব্যাকরণ সাজেশন কিছু অংশ থেকে দেওয়ায়ের চেষ্টা করলাম।

কারক ও অ-কারক সম্পর্ক (প্রশ্নমানঃ01)

1] ‘কলমের খোঁচায় তার চাকরি গেল।’– নিম্নরেখ পদটি –

(ক) কর্মসম্বন্ধ,

(খ) করণ সম্বন্ধ,

(গ) নিমিত্ত সম্বন্ধ,

(ঘ) অধিকরণ সম্বন্ধ ।

2] তিরিশ বছর ভিজায়ে রেখেছি দুই নয়নের জলে।’ – নিম্নরেখ পদটি–

(ক) অপাদান কারক,

(খ) কর্মকারক,

(গ) করণ কারক,

(ঘ) অধিকরণ কারক

3] রাজায় রাজায় যুদ্ধ হয়।’—এই বাক্যের কর্তাটি হল —

(ক) প্রযোজ্য কর্তা,

(খ) সহযোগী কর্তা,

(গ) ব্যতিহার কর্তা,

(ঘ) সমধাতুজ কর্তা।

4] ‘অস্ত্র রাখো’ – নিম্নরেখ পদটির কারক ও বিভক্তি নির্ণয় করো।

5] অনুক্ত কর্তা বলতে কী বোঝো?

6] অ-কারক পদ কয় প্রকার ও কী কী?

7] শব্দ বিভক্তির একটি উদাহরণ দাও।

8] সম্বন্ধপদ’কে কারক বলা যায় কিনা কারণসহ লেখো

9] প্রযোজ্য কর্তা কাকে বলে?

10] তির্যক বিভক্তি কাকে বলে? [

11] ‘মন্দিরে বাজছিল পূজার ঘণ্টা’ – নিম্নরেখ পদটির কারক ও বিভক্তি নির্ণয় করো।

12] বিভক্তি ও অনুসর্গের একটি পার্থক্য লেখো।

13] ‘মুখ্যকর্ম’ ও ‘গৌণকর্ম’ কী?

14] ‘উহা কর্তা’ কাকে বলে?

15] ‘সমধাতুজ’ শব্দের অর্থ কী?

16] কারক বলতে কী বোঝো? একটি উদাহরণ দাও।

17] সম্বন্ধপদ কারক নয় কেন?

18] সম্বন্ধপদ ও সম্বোধন পদের পার্থক্য কী?

19] ক্রিয়াপদের সঙ্গে নামপদের সম্পর্ককে বলে –

(ক) সমাস,

(খ) কারক,

(গ) প্রত্যয়,

(ঘ) বিভক্তি

20] বাংলা ব্যাকরণে অ-কারক পদের সংখ্যা হল –

(ক) ২টি,

(খ) ৩টি,

(গ) ১টি,

(ঘ) ৫টি

21] ‘মা মামাবাড়ি গেলে আমি দেখি’ – বাকাটিতে ‘মা’ কোন ধরনের কর্তা?

(ক) প্রযোজক কর্তা,

(খ) নিরপেক্ষ কর্তা,

(গ) বাক্যাংশ কর্তা,

(ঘ) ব্যতিহার কর্তা

22] ‘শূন্য বিভক্তি’ কাকে বলে?

23] প্রযোজ্য কর্তা কাকে বলে?

24] ব্যতিহার কর্তার একটি উদাহরণ দাও।

বাক্য পরিবর্তন (প্রশ্নমানঃ 01)

1] হায়, তোমার এমন দশা কে করলে। এটি কী ধরনের বাক্য?

(ক) অনুজ্ঞাসূচক বাক্য,

(খ) বিস্ময়সূচক বাক্য,

(গ) নির্দেশক বাক্য,

(ঘ) প্রশ্নবোধক বাক্য।

2] নির্দেশক বলতে কী বোঝো?

3] একটি বাক্যে দ্বিকর্মক ক্রিয়ার প্রয়োগ দেখাও।

4] ‘জেলেরা মাছ ধরছে। জটিল বাক্যে পরিবর্তন করো।

5] যৌগিক এবং জটিল বাক্যের একটি পার্থক্য লেখো।

6] একটি বাক্যে দ্বিকর্মক ক্রিয়ার প্রয়োগ দেখাও।

7] অনুজ্ঞাসূচক বাকা কাকে বলে?

8] বাক্যের আসক্তি বলতে কী বোঝো?

9] নির্দেশক বাক্যের একটি উদাহরণ দাও।

10] সন্ধ্যায় পাখিরা বাসায় ফেরে। (জটিল বাক্যে পরিবর্তন করো)

11] ঠিক ইসাবের মতো জামাটি না পেলে ও স্কুলে যাবে না। যৌগিক বাক্যে পরিবর্তন করো।

12] বৃথা আশা মরিতে মরিতেও মরে না। (যৌগিক বাক্যে পরিবর্তন করো)

13] অসিতবাবু আর কোনো প্রশ্ন করলেন না — প্রশ্নবোধক বাক্যে পরিবর্তন করো।

সমাস(প্রশ্নমানঃ 01)

1] ‘মেঘে ঢাকা শতটির ব্যাসবাক্যসহ সমাসের নাম উল্লেখ করো।

2] সমাস ও সন্ধির দুটি প্রধান পার্থক্য নির্দেশ করো।

3] দ্বিগু সমাসের একটি উদাহরণ দাও।

4] রূপক কর্মধারয় সমাসের উদাহরণ দাও।

5] ‘কালসর্প” শব্দের ব্যাসবাক্যসহ সমাসের নাম লেখো।

6] ‘বহুরূপী’ শব্দটির ব্যাসবাক্যসহ সমাসের নাম করে।

7] অব্যয়ীভাব সমাসের একটি উদাহরণ |

8] ‘বহুরীহি’ শব্দের অর্থ কী?

9] গৌর অঙ্গ যাহার – ব্যাসবাক্যটি সমাসবদ্ধ করে সমাসের। নাম লেখো।

10] ব্যাসবাক্যসহ একটি দ্বন্দ্ব সমাসের উদাহরণ দাও।

11] ‘বহুব্রীহি’ শব্দের অর্থ হল –

(ক) গোধন সম্পন্ন,

(খ) ধানের গোছা,

(গ) বহুবাহন,

(ঘ) কোনোটিই নয়।

12] ব্যাসবাক্যসহ সমাসের নাম লেখো: [পর্ষদ নমুনা প্রশ্ন]

অনুগমন , নবদূর্বাদলশ্যাম, পঞ্চনদ, রাজর্ষি, অন্তিমকাল, দেশান্তর, প্রত্যক্ষ, মন্বন্তর, জলমগ্ন, সাবধান, দশানন, চিরসুখ, অস্পৃশ্য, কাজলকালো, নীলকণ্ঠ, সপ্তাহ, আলুসেদ্ধ, পঞ্জকন্যা, সপ্তরথী, মুখোমুখি, গৃহহারা, কুম্ভকার, মৌমাছি, ছায়াতরু, বকধার্মিক, দেবদত্ত, প্রভাত।

13] ‘চরণ কমলের ন্যায়’ – ব্যাসবাক্যটি সমাসবদ্ধ করে সমাসের নাম লেখো।

14] ‘মেঘে ঢাকা’ শব্দটির ব্যাসবাক্যসহ সমাসের নাম উল্লেখ করো।

15] ব্যাসবাক্যসহ সমাস নির্ণয় করো – ইন্দ্ৰজিৎ পর্ষদ প্রদত্ত প্রশ্ন ভোজ্যবস্তু, পোশাক-পরিচ্ছদ, সন্ধ্যাহিক।

16] অব্যয়ীভাব সমাসের একটি উদাহরণ দাও।

 

বাচ্য পরিবর্তন (প্রশ্নমানঃ 01)

 

1] কর্মকর্তৃবাচ্য কাকে বলে?

2]বাচ্য কাকে বলে ?

3] কর্মবাচ্য কাকে বলে ?

4] ভাববাচ্য কাকে বলে ?

5] বাচ্য পরিবর্তন করো-

-আমারও অনুমান কতকটা তাই (কর্তৃবাচ্য)।

-পাঁচদিন নদীকে দেখা হয় নাই। (কর্তৃবাচ্যে)

-আয় আরো বেঁধে বেঁধে থাকি। (ভাববাচ্যে)

– বাংলার মুখ আমি দেখিয়াছি (ভাববাচ্যে)।

 

সংলাপ (প্রশ্নমানঃ05):

1] মোবাইল ফোন ব্যবহারের সুফল ও কুফল বিষয়ে দুই বন্ধুর মধ্যে একটি কাল্পনিক সংলাপ রচনা করো।।

2] বিজ্ঞানের ভালো-মন্দ দিক নিয়ে দুই বন্ধুর মধ্যে সংলাপ।

3] প্লাস্টিকের ভয়াবহতা নিয়ে দুই বন্ধুর সংলাপ।

4] প্লাস্টিক বর্জনের বিষয় নিয়েদুই বন্ধুর সংলাপ লেখ।

5] মাধ্যমিক পরীক্ষার পর কোথায় ঘুরতে যাবে তা নিয়ে দুই বন্ধুর মধ্যে সংলাপ।

6] বৃক্ষরোপণ উপযোগিতা বিষয়ে দুই বন্ধুর মধ্যে সংলাপ রচনা করো।

7] ছাত্র-ছাত্রীদের জীবনে কম্পিউটার শিক্ষা-এর ভূমিকা নিয়ে দুই বন্ধুর মধ্যে সংলাপ।

8] ছাত্র-ছাত্রীদের জীবনে দুরদর্শন / খেলাধুলার গুরুত্ব-এর ভূমিকা নিয়ে দুই বন্ধুর মধ্যে সংলাপ।

9] অনলাইনে পঠন-পাঠনের ভালো মন্দ নিয়ে দুই বন্ধুর সংলাপ লেখ।

10] ছাত্র-শিক্ষক সম্পর্ক নিয়ে দুই বন্ধুর মধ্যে একটি কাল্পনিক সংলাপ রচনা করো।

11] বিদ্যালয়ে প্রচলিত মিড-ডে মিল নিয়ে দুই বন্ধুর মধ্যে কাল্পনিক সংলাপ লেখো।

12] বিজ্ঞানের ভালো-মন্দ দিক নিয়ে দুই বন্ধুর মধ্যে সংলাপ।

প্রতিবেদন রচনা (প্রশ্নমানঃ05):

1] ‘পথ নিরাপত্তা সপ্তাহে পথ দেখালো ছাত্রছাত্রীরা’ – এ বিষয়ে সংবাদপত্রে প্রতিবেদন রচনা করো।

2] ‘রক্তদান জীবনদান’ শিরোনামে সংবাদপত্রে প্রকাশের জন্য একটি প্রতিবেদন রচনা করো।

3] ‘কন্যাশ্রী প্রকল্প’ বিষয়ে সংবাদপত্রের জন্য একটি প্রতিবেদন রচনা করো।

4] বিদ্যালয়ে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদ্যাপন।

5] তোমাদের এলাকায় পাঠাগার উদবোধন—এই বিষয় নিয়ে সংবাদপত্রে প্রকাশের উপযোগী একটি প্রতিবেদন রচনা।

6] বিদ্যালয়ের একটি সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান বিষয়ে একটি প্রতিবেদন রচনা করো।

 

বঙ্গানুবাদ (প্রশ্নমানঃ05):

1] Once morning a monk went out to beg for food. He met a farmer and asked for some alms. But the farmer refused to help him saying, “I plough my field sow the seeds and gather the grain. Thus it is only by working hard that I get my livelihood. But how can you obtain yours, since you neither plough nro sow?

2] Once two friends started on a travel. Their way lay through a forest. As they came half way through the forest, a bear was seen slowly approaching them. One of them climbed up a tree. The other did not know how to climb a tree and lay flat on his face without breathing.

3] The teachers are regarded as the backbone of the society. They build the future citizens of the country. They love students as their children. The teachers always encourage and inspire us to be good and great in life.

4] Jagadish Chandra Bose showed that there is no difference between the life of plants and animals. If we give the plants a blow they feel it and if we make them drink poison, they are affected by it like us. Like human beings they also sleep at night and wake up in the morning. They even die like men.

5] Once a mouse disturbed a lion in his sleep. The lion caught the mouse and was going to kill it; but it begged for pardon and was let go. Shortly after, the lion was caught in a strong net. Hearing his roar the mouse came there and cut the ropes with its teeth. The lion become free.

6] Home is the first school where the child learns his first lesson. He sees, hears and begins to learn at home. In a good home honest and healthy men are made. Bad influence at home spoils a child.

7] There was a shepherd boy. Everyday he would go up the hill to graze the sheep hard. One day, just to have fun he shouted, “Wolf! Help Wolf Help ! Down the hill, the farmers were working in their field. They heard his cry for help and at once rushed to the boy.

8] Once two friends started on a travel. Their way lay through a forest. As they came half way through the forest, a bear was seen slowly approaching them. One of them climbed up a tree. The other did not know how to climb a tree and lay flat on his face without breathing.

9] One day a dog stole a piece of meat from a butcher shop. He was crossing over a bridge. Suddenly, he saw his own shadow in the water. He thought that there was another dog and he had a bigger piece of meat.

10] One day a fox was going beside the vineyard. He saw the ripe grapes hanging from a vine. He jumped but did not reach it. Because they were beyond his reach.

11] The Peacock is first seen on the funeral wins of Harappa. The dead man’s spirit or ‘Suksma Sarira’ is depicted horizontally placed in the belly of the peacock which these birds are supposed to transport to the other world.

12] We should try to prosper in life. but we should not give up our sense of morality. If you compromise with dishonesty, it would be difficult for us to respect ourselves. So it is important to choose the right way.

 

প্রবন্ধ রচনা (প্রশ্নমানঃ05):

1] বাংলার উৎসব/বাংলার ঋতু

2] তোমার প্রিয় পর্যটন কেন্দ্র

3] বাংলার ঋতু বৈচিত্র্য

4]তোমার জীবনের লক্ষ্য

5] বিজ্ঞান ও কুসংস্কার

6] তোমার দেখা একটি মেলা/বইমেলা।

7] একটি ভ্রমণের অভিজ্ঞতা।

8] সাম্প্রতিক প্রাকৃতিক বিপর্যয়।

9] কুসংস্কারের অভিশাপ।

10] সংগীতের জগতে ইন্দ্রপতন : লতা মঙ্গেশকর

11] ছাত্রদের সামাজিক দায়িত্ব।

12] দেশগঠনে ছাত্রছাত্রীদের ভূমিকা।

সমাপ্ত

2023 Madhyamik Suggestion PDF:

File NAME: Madhyamik Bengali Suggestion PDF 2023.pdf
File type: PDF
File Size: 01 MB
Link: Download Now

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

RELATED ARTICLES

Most Popular