Homeঅন্যান্য১১ ডিসেম্বরের টেটের কয়েকশ অ্যাডমিট কার্ড, OMR শিট উদ্ধার কুন্তলের বাড়ি থেকে,...

১১ ডিসেম্বরের টেটের কয়েকশ অ্যাডমিট কার্ড, OMR শিট উদ্ধার কুন্তলের বাড়ি থেকে, এবারেও দুর্নীতি?

২০২২ সালের ১১ ডিসেম্বর রাজ্য জুড়ে হয়েছিল টেট পরীক্ষা। পরীক্ষার্থীরা বহু বছর ধরে অপেক্ষা করে আসছিলেন এই পরীক্ষার জন্য, কিন্তু বিভিন্ন নিয়োগ সংক্রান্ত দুর্নীতির জেরে পিছিয়ে ছিল পরীক্ষা প্রক্রিয়া। অবশেষে রাজ্য সরকার ২০২২ সালের ১১ ডিসেম্বর টেট পরীক্ষার আয়োজন করে। রাজ্য সরকার সর্বতভাবে চেষ্টা করেছিল যাতে এইবারের টেট পরীক্ষা সম্পূর্ণ রূপে দুর্নীতিমুক্ত রাখা যায়

পরীক্ষার হলে প্রবেশ থেকে ভেরিফিকেশন , সবকিছুই কড়া নিয়মের মধ্য দিয়ে করা হয়েছিল। এবার এই বজ্রআঁটুনির মধ্যেও রয়ে গেল প্রশ্ন চিহ্ন।

সম্প্রতি 11 ডিসেম্বর টেট পরীক্ষার কয়েকশ এডমিট কার্ড, উত্তরপত্র (Tet OMR) এবং অন্যান্য নথি উদ্ধার হল কুন্তলের বাড়ি থেকে। উদ্ধার হয়েছে একাধিক ডায়েরি এবং বিপুল সংখ্যক নথি। সম্প্রতিকালে যে সমস্ত পরীক্ষার্থীরা টেট পরীক্ষায় বসেছিলেন, তাদেরই অ্যাডমিট কার্ড , ওএমআর শিট এবং ডি এল এড এর সার্টিফিকেট উদ্ধার করা হয়েছে তার বাড়ি থেকে। তবে কি এবারেও টেট পরীক্ষার চাকরি বিক্রি হচ্ছে?

তদন্তকারী সংস্থার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে গত 11 ডিসেম্বর যে সমস্ত প্রার্থীরা টেট পরীক্ষা দিয়েছিলেন, তাদের মধ্যে কয়েকশো প্রার্থীর বিভিন্ন নথি উদ্ধার হয়েছে কুন্তলের লেকটাউন ফ্লাটের মধ্যে তলাশি চালিয়ে। এই সমস্ত নথি তার কাছে কিভাবে এলো, কেন এলো, ইত্যাদি প্রশ্ন জানার চেষ্টা করছেন গোয়েন্দারা।

See also  নেতাজি সুভাষ মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে শুরু হলো স্নাতকে ভর্তির প্রক্রিয়া, জেনে নিন সমস্ত খুঁটিনাটি।

সম্প্রতি ২০ জানুয়ারি তৃণমূলের রাজ্য সম্পাদক কুন্তল ঘোষের দুটি ফ্ল্যাটে একসাথে তল্লাশি চালায় এনফোর্সমেন্ট ডিপার্টমেন্ট। প্রায় 27 ঘন্টা ধরে তল্লাশি প্রক্রিয়া চালানো হয় এবং পরের দিন অর্থাৎ ২১ জানুয়ারি সকালে কুন্তল কে গ্রেফতার করে ED!

জেরা করার পাশাপাশি সেই সমস্ত নথিও পরীক্ষা করছেন এনফোর্সমেন্ট ডিপার্টমেন্টের গোয়েন্দারা।

ধারণা করা হচ্ছে যে ২০২২ সালের টেট পরীক্ষার চাকরি ও বিক্রি করার পরিকল্পনা ছিল তাদের। যে সমস্ত পরীক্ষার্থীদের এডমিট কার্ড এবং অন্যান্য নথি পাওয়া গেছে তাদের বিরুদ্ধেও পরে ব্যবস্থা নেওয়া হতে পারে। নিয়োগ দুর্নীতির মূল পান্ডারা বর্তমানে জেলবন্দি রয়েছেন। কিন্তু তা সত্ত্বেও কিভাবে এখনো টেট পরীক্ষার বিভিন্ন নথি ফাঁস হচ্ছে এবং এর পিছনে কারা আছে সেই সমস্ত নিয়েও রয়েছে একাধিক প্রশ্ন।

গ্রেফতার করার পর কুন্তল কে বিভিন্নভাবে জেরা করে চলেছেন গোয়েন্দারা তবে এখন অব্দি তার মুখ থেকে কিছু বের করা যায়নি। অপেক্ষা করা হচ্ছে তার মুখ থেকে সম্পূর্ণ বিষয়টি বিশদে জানার।

RELATED ARTICLES

Most Popular