HomeEducation Newsনেতাজি সুভাষ মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে উলোটপুরাণ! তিন বছরের পঠনপাঠনই জারি থাকবে। জানুন বিস্তারিত।

নেতাজি সুভাষ মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে উলোটপুরাণ! তিন বছরের পঠনপাঠনই জারি থাকবে। জানুন বিস্তারিত।

আমরা সকলেই জানি যে জাতীয় শিক্ষানীতি অনুসারে চলতি শিক্ষাবর্ষ থেকে স্নাতকস্তরে (Graduation Course) সর্বত্র চার বছরের কোর্সে ভর্তি প্রক্রিয়া (Admission Process) শুরু হয়েছে। কিন্তু এই ক্ষেত্রে উল্টো পথগামী হয়েছে রাজ্যের একটি বিশ্ববিদ্যালয়(University)। সেই বিশ্ববিদ্যালয়ে তিন বছরের পঠনপাঠন অব্যাহত রাখারই সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

কোন সেই বিশ্ববিদ্যালয় (University) ভাবছেন তো? আপনার উত্তর হলো নেতাজি সুভাষ মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়(Netaji Subhas Open University)! সূত্র অনুযায়ী জানা গেছে যে, বিশ্ববিদ্যালয়টির তরফে স্নাতকস্তরে (Graduation Course) এই সংক্রান্ত ভর্তির বিজ্ঞপ্তি কয়েক দিনের মধ্যে প্রকাশ করতে চলেছে। উল্লেখ্য যে প্রতি বছর প্রায় ৭০ হাজার পড়ুয়া স্নাতকস্তরে (Graduation Course) প্রথম বর্ষে এই বিশ্ববিদ্যালয়ে (University) ভর্তি হন।

UGC এর নিয়ম অনুযায়ী দেশের সমস্ত মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়গুলিকে পড়ানো হয় বিভিন্ন ‘প্রোগ্রাম'(Programme)। পাঁচ বছর অন্তর নতুন করে অনুমতিও নিতে হয় প্রতিটি ‘প্রোগ্রাম'(Programme)-এর পঠনপাঠন চালু রাখতে। সেই নিয়ম মতো এই বিশ্ববিদ্যালয় UGC এর কাছে এবারেও স্নাতকের (Graduation) ১৭টি ‘প্রোগ্রাম’-এর অনুমতির আবেদন করে কিন্তু তাতে তিন বছরের পঠনপাঠনের কথাই উল্লেখ ছিল।

উল্লেখ্য যে তখনও নতুন শিক্ষানীতির কথা জানানো হয়নি। গত মাসে UGC এর কাছ থেকে ১৭টি ‘প্রোগ্রাম’-এর মধ্যে ১৫টি পড়ানোর অনুমতি (Permission) পাওয়া গিয়েছে। ভর্তির প্রক্রিয়া শুরুর আগে সম্প্রতি একটি বৈঠক ডাকা হয়েছিল গত সোমবার অ্যাকাডেমিক কাউন্সিলের (Academic Council) সদস্যদের নিয়ে। সেখানেও সকলের মতামত নিয়ে তিন বছরের পঠনপাঠন চালু রাখারই সিদ্ধান্ত (Decision) নেওয়া হয়েছে।

See also  পরীক্ষার পরের দিনই বাতিল পরীক্ষা! জালিয়াতির তদন্ত করবে CBI! জানুন বিস্তারিত।

তবে এই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকমন্ডলীর অধিকাংশের মতে তিন বছরের পঠনপাঠন হলে, অন্য বিশ্ববিদ্যালয়গুলির (Universities) সঙ্গে তা সমতুল্য হবে না। এই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির সভাপতি মনন কুমার মণ্ডল (Manan Kumar Mandal) মঙ্গলবার সরাসরি জানিয়েছেন যে এর ফলে ভর্তি হওয়া পড়ুয়াদের ক্ষতি হতে পারে।

যদিও এই বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার অসিতবরণ আইচের (Registreer Asitbaran Aich) গলাতে অন্য সুর শোনা গেছে। তাঁর মতে শুধু তো এই বছরেই শুধুমাত্র তিন বছরের পঠনপাঠন করানো হবে। আগামী শিক্ষাবর্ষ থেকে অন্যান্য সমস্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের মতোই চার বছরের পঠনপাঠন চালু করা হবে। তাই সেই অর্থে কোনো পড়ুয়ার ক্ষতিসাধন করা হবেনা বলেই মত তাঁর।

-Written by Riya Ghosh

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

RELATED ARTICLES

Most Popular